‘২০২২ সালের আগে পাওয়া যাবে না ওমিক্রনের ভ্যাকসিন’

|

ছবি: সংগৃহীত

২০২২ সালের আগে পাওয়া যাবে না করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের ভ্যাকসিন। জানিয়েছেন মডার্নার মুখ্য গবেষক ড. পল বার্টন।

গত রোববার (২৮ নভেম্বর) বিবিসির একটি অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন তিনি। সেখানেই জানান, টিকাদান কর্মসূচিতে ব্যবহৃত ভ্যাকসিনগুলো নতুন ভ্যারিয়েন্ট রুখতে কতোটা কার্যকর- তা নিশ্চিতে আরও দু’সপ্তাহ সময় প্রয়োজন। ওমিক্রনের বিরুদ্ধে নতুন ভ্যাকসিনের বিষয়ে পল বার্টন জানান, ২০২২ সালের শুরুতেই বানানো হতে পারে টিকা। তবে বৃহৎ পরিসরে বাজারজাতের জন্য সময় লাগবে। সাক্ষাৎকারে বারবারই সবাইকে টিকাদানের আওতায় আনার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। বলেন, ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ভ্যাকসিনের কোনো বিকল্প নেই।

আরও পড়ুন: দক্ষিণ আফ্রিকায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা, ক্ষুব্ধ প্রেসিডেন্ট

মডার্নার চিফ মেডিকেল অফিসার ডক্টর পল বার্টন বলেন, বর্তমানে যে এমআরএনএ ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে, সেটি নতুন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত লড়াই করতে সক্ষম। নতুন ওষুধ ও টিকার ব্যাপারে গবেষণা চলছে। ওমিক্রন নির্মূলে নতুন ভ্যাকসিন বানানো হলেও সেটি ২০২২ সালের আগে হাতে পাওয়া যাবে না। আর, কীভাবে কোভিড সামাল দেয়া সম্ভব, এ ব্যাপারে কমবেশি সবার ধারণা রয়েছে। অন্যান্য রোগ থাকলে সতর্ক থাকতে হবে।

গত ২৪ নভেম্বর করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের তথ্য জানায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এরইমধ্যে আফ্রিকা এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে দেয়া হয়েছে নতুন করে লকডাউন।

আরও পড়ুন: ওমিক্রন নিয়ে ভারতের সকল রাজ্যকে ‌‌‌‌’অতি সতর্ক’ থাকার নির্দেশ

/এমই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply