অভিষিক্ত এবাদতের তোপে বিপর্যয়ে জিম্বাবুয়ে, রাজার গোল্ডেন ডাক

|

এবাদত হোসেনের ট্রেডমার্ক উদযাপন।

শেষ ম্যাচে গিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর উপলক্ষ তৈরি করেছে বাংলাদেশ। মুখোমুখী হওয়া প্রথম বলেই এই সিরিজে বাংলাদেশের পরাজয়ের প্রধান কারণ সিকান্দার রাজার স্ট্যাম্প উপরে ফেলেছেন অভিষিক্ত ফাস্ট বোলার এবাদত হোসেন। এর আগের বলেও মাধেভেরেকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে প্রথম উইকেটের দেখা পান এবাদত।

প্রথম দুই ওভারেই সাজঘরে ফিরে গেছেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার। বাংলাদেশের দেয়া ২৫৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসেই পেসার হাসান মাহমুদের ইনসুইঙ্গারে এলবইডব্লিউ হয়ে ফেরেন তাকুদোয়ানাশে কাইতানো। এরপরেও ওভারে আক্রমণে এসেই তাদিওয়ানাশে মুরামানিকে বোল্ড করেন মেহেদী মিরাজ।

এরপর প্রথম পরিবর্তিত বোলার হিসেবে আক্রমণে আসেন এ ম্যাচেই ওয়ানডেতে অভিষিক্ত এবাদত হোসেন। দ্বিতীয় ওভার করতে এসেই এই ফাস্ট বোলারের হঠাৎ লাফিয়ে ওঠা বলে বোকা বনে পয়েন্টে ক্যাচ তুলে দেন ১ রান করা ওয়েসলি মাধেভেরে। ৩ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে জিম্বাবুয়ে। আর সিকান্দার রাজার তো এমন উপলক্ষই পছন্দ! কিন্তু এবার আর বীরত্ব দেখানোর সুযোগই পেলেন না এই ম্যাচে জিম্বাবুয়ের অধিনায়কত্ব করা এই অলরাউন্ডার। এবাদতের ফুল লেন্থ ইনসুইঙ্গারে প্লেইড অন হয়ে গোল্ডেন ডাক জোটে এই ইনফর্ম ব্যাটারের উইলোতে।

এরপর ইনোসেন্ট কাইয়াকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে জিম্বাবুয়ের দুর্দশা আরও ঘনীভূত করেন তাইজুল ইসলাম। প্রতিবেদনটি লেখার সময় জিম্বাবুয়ের রান ছিল ১০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩২ রান। এর আগে, এনামুল বিজয় ও আফিফ হোসেনের ব্যাটে ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৫৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন: ‘কোচ হিসেবে ডোমিঙ্গো অনেক জ্ঞানী, কিন্তু আগ্রাসী নন’

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply