শ্রীলঙ্কায় আবারও জরুরি অবস্থা জারি

|

ছবি: সংগৃহীত

তীব্র বিক্ষোভের জেরে আবারও জরুরি অবস্থা জারি হলো শ্রীলঙ্কায়। শুক্রবার (৬ মে) এ সিদ্ধান্ত জানান রাষ্ট্রপতি গোতাবায়ে রাজাপাকসে। যা কার্যকর হয় মধ্যরাত থেকে। খবর এনডিটিভির।

প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জানান, গোতাবায়ে রাজাপাকসে নিরাপত্তা বাহিনীকে ব্যাপক ক্ষমতা দিয়ে জরুরি অবস্থা জারি করেন। ট্রেড ইউনিয়ন সমূহ অর্থনৈতিক সঙ্কটের জন্য প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবিতে শুক্রবার দেশব্যাপী ধর্মঘট করেছে। তাই ‘আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি’ বজায় রাখতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

৫ সপ্তাহের মাথায় দ্বিতীয়বারের মতো জরুরি অবস্থা জারি হলো দেশটিতে। এর ফলে বিশেষ ক্ষমতা পেলো নিরাপত্তা বাহিনী। বিচার ছাড়াই আটক করে রাখা যাবে সন্দেহভাজনদের।

অর্থনৈতিক সংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কায় সরকারের বিরুদ্ধে জনরোষ এখন তুঙ্গে। শুক্রবার পূর্বঘোষিত ধর্মঘট পালনে বন্ধ ছিল স্কুল-কলেজ, দোকানপাট ও সরকারি-বেসরকারি অফিস। এ সময় চলেনি কোনো গণপরিবহন। বিক্ষোভকারীরা রাজপথে নেমে এলে অচল হয়ে পড়ে গোটা দেশ। আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল ও জলকামান ছোড়ে পুলিশ।

এর আগে গত মাসের ২ তারিখ প্রথমবারের মতো জরুরি অবস্থা জারি করেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়ে রাজাপাকসে। সেসময় পরিস্থিতি এতোটাই খারাপ হয়ে ওঠে যে বাধ্য হয়ে গোতাবায়ে রাজাপাকসে সরকারের ২৬ মন্ত্রী একসঙ্গে পদত্যাগ করেন।
আরও পড়ুন: ‘খেরসনে চিরকাল থাকার পরিকল্পনা করেই এসেছে রাশিয়া’
ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply