তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে: আইনমন্ত্রী

|

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। এমনটা জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এ তথ্য জানান তিনি। মন্ত্রী বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার পেপারবুক তৈরির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আগামী দুই থেকে চার মাসের মধ্যে পেপার বুক তৈরি হলে হাইকোর্টে শুনানির চেষ্টা করা হবে।

মন্ত্রী জানান, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় ২২৫ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে। বড় মামলা হওয়ায় ডেথ রেফারেন্স ও জেল আপিল পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর পেপার বুক তৈরিতে সময় লাগছে।

আইনমন্ত্রী, সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামিদের ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানিয়েছেন।

মামলার দীর্ঘসূত্রতার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বিচারিক আদালত যদি কাউকে ফাঁসি দেন, তবে ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৭৪ ধারা অনুযায়ী সেই মামলা ডেথ রেফারেন্স হিসেবে হাইকোর্ট ডিভিশনে চলে যায়। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও হত্যা মামলা; এখানে রায়ে কিছুসংখ্যক আসামির ফাঁসি হয়েছে, কিছুসংখ্যক আসামির যাবজ্জীবন হয়েছে। ফাঁসি হওয়ার কারণে মামলাটি ডেথ রেফারেন্স হিসেবে হাইকোর্টে চলে গেছে। যারা যাবজ্জীবন সাজা পেয়েছেন, তারাও আপিল করেছেন। হাইকোর্ট বিভাগের নিয়ম হচ্ছে- ডেথ রেফারেন্স এবং আপিলটাকে একসঙ্গে ট্যাগ করে তারা শুনানি করে। সে ক্ষেত্রে কিছু আনুষ্ঠানিকতা আছে, যেগুলো পূর্ণ করতে হয়; এ জন্য সময় লেগে গেছে।

প্রসঙ্গত ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত হন। আহত হয়েছেন আনেকে। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।









Leave a reply