মাদ্রাসার ভিতর আটকিয়ে শিশুর শ্লীলতাহানি

|

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে মোকসেদ আলী নামে পঞ্চাশোর্ধ ব্যক্তির বিরুদ্ধে ১২ বছরের এক শিশুকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। মোকসেদ আলী পীরগঞ্জ একান্নপুর গ্রামের মৃত পশির উদ্দীনের ছেলে। শনিবার সকালে উপজেলার মালগাঁও পকুয়ান টলি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পীরগঞ্জ থানার ওসি বজলুর রশিদ জানান, মালগাঁও গ্রামের রুস্তম আলীর শিশু কন্যা স্থানীয় মালগাঁও তালেম কুরআন মাদ্রাসা ও এতিম খানা লিল্লাহ বোর্ডিং এর ছাত্রী। সে প্রতিদিনের মতো শনিবার সকালে মাদ্রাসায় লেখাপড়া করতে গেলে মাদ্রাসার কক্ষের দরজা বন্ধ পায়। এসময় মাদ্রাসার পাশের দোকানে কক্ষের চাবি থাকায় সে দোকানে যায় এবং দোকান মালিক মোকসেদ আলীর কাছে চাবি চায়। এ সময় মোকসেদ আলী তার হাতে চাবি না দিয়ে নিজে গিয়ে দরজা খুলে দেয়। ছাত্রীটি ভিতরে প্রবেশ করলে দোকানদার মোকসেদ আলী দরজা বন্ধ করে তার শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এসময় শিশুটি চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে। মোকসেদ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এঘটনায় শনিবার দুপুরে মোকসেদ আলীকে আসামি করে শিশুটির পিতা রুস্তম আলী পীরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান বলেন, মোকসেদ আলীর চরিত্র তেমন সুবিধার নয়। ঘটনার সত্যতা জানতে মোকসেদ আলীর সাথে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।









Leave a reply