২৩৩ যাত্রীর জীবন রক্ষা: পাইলটকে রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করবে রাশিয়া

|

রাশিয়ার একটি যাত্রীবাহী বিমান একটি পাখির ঝাঁকের সঙ্গে ধাক্কা লাগার পর মস্কোর কাছে একটি ভুট্টা ক্ষেতে জরুরি অবতরণ করে গতকাল। এতে বিমানটির ২৩৩ যাত্রী ও ক্রুরা বড় কোনো ক্ষতির সম্মুখীন হননি। তবে ২৩ জন কিছুটা আহত হয়েছেন।

উরাল এয়ারলাইনসের ৩২১ এয়ারবাসটি ক্রাইমিয়ার সিমফেরোপলে যাচ্ছিল। বিমানটি ওড়ার অল্পক্ষণের মধ্যেই এক ঝাঁক চিলের সাথে ধাক্কা খায় এবং ফলে বিমানের ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়।

রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এই অবতরণকে ”রামেনস্কে অলৌকিক অবতরণ” বলে বর্ণনা করেছে।

মূলত পাইলট দামির ইউসোপভের অসাধারণ নৈপুন্যে এতজন যাত্রী রক্ষা পান নিশ্চিত মৃত্যু থেকে। এ কারণে দামিরকে রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করার ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া সরকার।

বিমান সংস্থা বলেছে বিমানটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে এবং সেটি আর উড়তে পারার অবস্থায় নেই। ঘটনায় সরকারি তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে।

অজ্ঞাতপরিচয় একজন যাত্রী রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেলকে জানান বিমানটি মাটি থেকে আকাশে ওঠার পর অসম্ভব রকম কাঁপতে শুরু করে।

”পাঁচ সেকেণ্ড পরেই বিমানের ডানদিকে বাতি ফ্লাশ করতে শুরু করে এবং পোড়া গন্ধ বেরুতে থাকে। এরপর বিমানটি অবতরণ করে এবং প্রত্যেকে বিমান থেকে বেরিয়ে ছুটে পালায়,” বলেন তিনি।

বিমান পরিবহন সংস্থা রোজাভিয়াৎসিয়া বলছে, বিমানটি ঝুকোভস্কি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে একটা ভুট্টা ক্ষেতে নেমেছে। বিমানের ইঞ্জিন কাজ করছিল না এবং চাকাও গুটানো ছিল।

রুশ সংবাদমাধ্যম এই ঘটনাকে ২০০৯ সালে ইউ এস এয়ারওয়েসের একটি বিমান ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই যেভাবে হাডসন নদীর ওপর জরুরি অবতরণ করেছিল তার সাথে তুলনা করেছে।

বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে পাখির সঙ্গে বিমানের সংঘর্ষ একটা চলতি সমস্যা। আমেরিকায় বছরে কয়েক হাজার এধরনের ঘটনার খবর পাওয়া যায়। তবে পাখির সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনা বা বিমানের ক্ষতির ঘটনা প্রায় বিরল।









Leave a reply