যেভাবে স্মার্টফোনের তথ্য নিরাপদ রাখবেন

|

স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা তথ্য নিরাপত্তা নিয়ে সর্বদা এক প্রকার ঝুঁকিতে থাকে। ফোনে থাকা অ্যাপ থেকে আপনার তথ্য চুরি হয়ে যেতে পারে যে কোনো সময়।

হ্যাকাররা ফেসবুকসহ জনপ্রিয় বেশ কয়েকটি অ্যাপকে লক্ষ্যবস্তু করেছে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য চুরির জন্য।

বড় বড় প্রতিষ্ঠান স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে তাদের পছন্দের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করার জন্য।

বেশিরভাগ অ্যাপ ব্যবহারের আগে ব্যবহারকারীদের ফোনের কন্টাক্ট, ক্যামেরা, মাইক্রোফোন এসব পরিষেবা একসেসের অনুমতি চায়। বিশেষ করে বার্তা আদান প্রদানকারী অ্যাপগুলো ব্যবহার করে কল করার সময় এ ধরনের একসেস চাওয়া হয়। এক্ষেত্রে অনুমতি দিলেই ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হওয়ার আশংকা থাকে।

অ্যাপে তথ্য সংগ্রহের সব অনুমতি দেবেন না : যদি দেখেন কোনো অ্যাপ ডাউনলোডের সময় প্রয়োজনের অতিরিক্ত তথ্য চাইছে, তবে সতর্ক হতে হবে।

নিজের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে চাইলে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে।

১. অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সেটিংসে যান

২. স্মার্টফোনের অ্যাপস বা অ্যাপ্লিকেশন ম্যানেজার যান

৩. তালিকায় থাকা সন্দেহভাজন অ্যাপে ক্লিক করুন

৪. পারমিশন অংশে যান

৫. সেখানে টগল করে যেগুলোর অনুমতি দিতে চান না, তা বন্ধ করে দিন

৬. এছাড়া সিকিউরিটি সেটিংসে গিয়ে অ্যাপ পারমিশন অংশ থেকে কোন অ্যাপ কিসের অনুমতি নিয়েছে, তা দেখতে পারেন। এরপর প্রয়োজনে অ্যাপ আনইনস্টল করতে বা নতুন অ্যাপ ইনস্টল করতে পারেন।









Leave a reply