দুর্নীতির দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন

|

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। মঙ্গলবার রাজধানীর বকশীবাজারে  বিশেষ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান এ  জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এর আগে সকালে দুর্নীতির দুই মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে আদালতে আত্মসমর্পণ করেছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এখন খালেদা জিয়ার অসমাপ্ত আত্মপক্ষ সমর্থন চলছে। তিনি বলেন,  আমার বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মিথ্যা প্রচারণা করছে প্রধানমন্ত্রী, এই মামলায় সাক্ষীদের বক্তব্য অসত্য ও ভিত্তিহীন।

গত বৃহস্পতিবার জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আদালতে হাজির হননি খালেদা জিয়া। পরে জামিন বাতিল করে তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। যদিও জিয়া অরফানেজ মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য শেষ হয়নি তাঁর; তবে আজ থেকে পরবর্তী তিন দিন যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সুযোগ পাবেন তিনি।

তাঁর আইনজীবী আদালতকে জানিয়েছিলেন, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম দলগুলোর ডাকা হরতালের কারণে গত বৃস্পতিবার আদালতে যেতে পারেননি খালেদা জিয়া। তবে আদালত তা গ্রহণ না করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট-সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলা করে দুদক।

যমুনা অনলাইন: আরএএম









Leave a reply