রাজবাড়ীতে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৯ রোগী

|

রাজবাড়ী প্রতিনিধি:

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে এই পর্যন্ত ১৯ জন ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত করা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে দুইজন রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া চারজন অন্তঃবিভাগে এবং অন্যরা বহিঃবিভাগে চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

ডেঙ্গু নিয়ে ভর্তি রোগীরা হলেন- জেলা শহরের সজ্জনকান্দা এলাকার আনন্দ সরকারের মেয়ে লতা সরকার (২৯) ও বহরপুর ইউনিয়নের সাঈদ ব্যাপারীর ছেলে সম্রাট ব্যাপারী (১৪)।আক্রান্ত লতা ঢাকায় থাকেন।

তবে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের জন্য আলাদা কোন সেল বা কক্ষ করা হয়নি। অন্যসব সাধারণ রোগীদের মাঝেই ডেঙ্গু রোগীদের দেওয়া হচ্ছে চিকিৎসা সেবা।

এদিকে সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী শনাক্তে শতভাগ পরীক্ষা নিরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় রোগীদের বাইরের প্রাইভেট ক্লিনিক গুলো থেকে রক্ত পরীক্ষা করতে হচ্ছে। সদর হাসপাতাল থেকে শুধু ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়া রোগীদের দেওয়া হচ্ছে চিকিৎসা ও সচেতনতামূলক পরামর্শ।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত লতা সরকার বলেন, তিনি ঢাকায় চাকরি করেন এবং সেখানেই থাকেন। গত সপ্তাহের মঙ্গলবার থেকে তার জ্বর। পরবর্তীতে তিনি রাজবাড়ীতে এসে শুক্রবার প্রাইভেট ক্লিনিক ডক্টরস কেয়ার থেকে রক্ত পরীক্ষা করান। তাতে ডেঙ্গু ধরা পড়লে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। বর্তমানে তিনি আগের থেকে অনেকটা সুস্থ।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত সম্রাটের দাদী বলেন, তার নাতনীর আজ পনের দিনের মত জ্বর এবং গায়ে ছোট ছোট লালচে চিহ্ন রয়েছে। ফলে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। চিকিৎসকরা দেখে বলেছেন ডেঙ্গু।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ শাহনিমা নার্গিস জানান, সদর হাসপাতালে ১৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছিলেন। এখন দুইজন রোগী ডেঙ্গু চিকিৎসা নিচ্ছেন।









Leave a reply