হাজিদের নিজ ভাষায় কথা বলে সেবা দেবেন ৫০০ সৌদি শিক্ষার্থী

|

সৌদিতে প্রতি বছর পবিত্র হজ পালনে জড়ো হন ২০ লাখেরও বেশি মানুষ। তাদের অনেকেই নিজ নিজ ভাষার বাইরে অন্য কোনো ভাষায় কথা বলতে পারেন না। এতে হাজিদের নানান প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে হয়। সমস্যা তৈরি হয় আয়োজক দেশের নিরাপত্তাকর্মী বা অন্যান্য সেবাদাতাদের জন্যও।

এই সমস্যা দূর করতে ৫০০ সৌদি শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে সৌদি আরব। এই শিক্ষার্থীদেরকে একেকটি নতুন ভাষা শেখানো হয়েছে। যে যেই ভাষা শিখেছেন সে সেই ভাষার মানুষদের সেবায় নিয়োজিত থাকবেন হজ চালাকালীন।

সেবার মধ্যে রয়েছে হাজিদের পৌঁছানোর জন্য অভ্যর্থনা জানানো, বিভিন্ন স্থাপনা ও পথ দেখিয়ে দেয়া, বিভিন্ন অনুষ্ঠানের সময়সূচি সম্পর্কে ধারণা দেয়া ইত্যাদি।

সৌদি পাসপোর্ট বিভাগ জানিয়েছে, দুই বছর ধরে এই কর্মসূচি চললেও এবার সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী সেবা দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। দশটির বেশি ভাষায় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে এসব শিক্ষার্থীদের। এরমধ্যে রয়েছে ইংরেজি, উর্দু, স্পেনিশ, জাপানিজ, ইন্দোনেশিয়ান, ফারসী, তুর্কি এবং অন্যান্য ভাষা।

বিমানবন্দর, হোটেল, মসজিদে হারামাই ইত্যাদি জায়গায় এইসব শিক্ষার্থী অবস্থান করবেন। সামনের বছরগুলোতে এ ধরনের সেবা আরও বাড়ানো হবে বলে আরব নিউজকে জানিয়েছেন পাসপোর্ট বিভাগের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ড. সালেহ বিন সাদ আল মারবা।









Leave a reply