ইসরাইলি মন্ত্রী ও প্রিয়া সাহাকে নিয়ে যত বিতর্ক

|

ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজের শেয়ার করা একটি ছবিতে তার পেছনে প্রিয়া সাহাকে দেখা যাওয়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে বলেছেন, এটি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে ইরান সংকট নিয়ে একটি বৈঠক শেষে তোলা ছবি। অনেকে বলছেন এটি নিতান্তই পাবলিক গেদারিং। ইসরায়েল কাটজের টুইটারে পোস্ট করা ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে, বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর খালিদ বিন আহমদের সাথে হাস্যোজ্জ্বল দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। তাদের পেছনে একাধিক টেবিলে বেশ কিছু লোকজন দাঁড়িয়ে ও বসে আছেন। টেবিলগুলোতে খাবার সার্ভ করা আছে।

টুইটে ইসরায়েল কাটজ লিখেছেন- “Yesterday I met publicly with the Foreign Minister of Bahrain @khalidalkhalifa at the [U.S. State Department’s] Ministerial on Religious Freedom Another example of our growing diplomatic connections I will continue to work with [Israeli Prime Minister Benjamin Netanyahu] to advance Israel’s relations with the Gulf countries.”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু ইস্যু নিয়ে বক্তব্য দিয়ে আলোচনায় আসা প্রিয়া সাহাও Ministerial To Advance Religious Freedom অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্য ওয়াশিংটন গিয়েছিলেন। মূলত, সেই অনুষ্ঠানের ডিনার পার্টি ছিল। সকল অংশগ্রহণকারীদের জন্য উন্মুক্ত এই ডিনারে ‘বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের’ সদ্য বরখাস্ত হওয়া সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহাও নিতান্ত একজন অংশগ্রহণকারী হিসেবেই উপস্থিত ছিলেন।

ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মূলত ছবিটি শেয়ার করে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে তার যোগাযোগকে প্রকাশ্যে আনতে চেয়েছেন বলে ধারণা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জুলাই ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার ব্যক্তির সঙ্গে বৈঠক করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহাও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান। মার্কিন প্রেসিডেন্টকে তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। বাংলাদেশে ৩৭ মিলিয়ন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান নিখোঁজ রয়েছেন। দয়া করে আমাদের লোকজনকে সহায়তা করুন। আমরা আমাদের দেশে থাকতে চাই।

কারা এমন নিপীড়ন চালাচ্ছে? ট্রাম্পের এমন প্রশ্নের জবাবে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘দেশটির মৌলবাদীরা এসব করছে। তারা সবসময় রাজনৈতিক আশ্রয় পাচ্ছে।’

প্রিয়া সাহার এমন বক্তব্য দেশজুড়ে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

যমুনা অনলাইন: টিএফ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply