আজ এসএমএস-এর ২৫ বছর পূর্তি

|

Young woman using cell phone to send text message on social network at night. Closeup of hands with computer laptop in background

আজ এসএমএস (শর্ট মেসেজ সার্ভিস) সার্ভিসের ২৫ বছর পূর্তি। ১৯৯২ সালের ৩ ডিসেম্বর ২২ বছরের  ব্রিটিশ টেকনেশিয়ান নেইল প্যাপওয়ার্থ তার সহকর্মী রিচার্ড জারভিসকে পাঠিয়ে ছিলো। এখনকার মতো মোবাইলে ম্যাসেজটি পাঠানো হয়নি, পাঠানো হয়েছিলো কম্পিউটার থেকে। পৃথিবীর প্রথম বার্তাটি ছিলো ‘মেরি ক্রিসমাস’।

নেইল প্যাপওয়ার্থ স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, ১৯৯২ সালে যখন এসএমএস তৈরি করি তখন আমার ধারণা ছিলো না বার্তা প্রেরণ এতো জনপ্রিয় হবে।  এখন আমি আমার ছেলেদের গল্প করে বলি পৃথিবীতে আমি প্রথম ম্যাসেজ পাঠিয়েছি।

নেইল প্যাপওয়ার্থ

নেইল প্যাপওয়ার্থ একজন ডেপেলপার ও ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে ভোডাফোনে কাজ করতেন তখন তিনি এই ম্যাসেজ সার্ভিসটি তৈরি করেন। এর একবছর পর ১৯৯৩ সালে নোকিয়া ম্যাসেজ আগমনে ‘বিপ’ শব্দের যোগ করে। প্রথম দিকে ম্যাসেজে মাত্র ১৬০টি শব্দ ব্যবহার করা যেতো।

পরে ১৯৯৯ সালে জাপানে ইমোজি আবিষ্কার হলে ম্যাসেজ পাঠানো আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠে। শুধু ব্রিটেনেই একদিনে  ৯৬ বিলিয়ন ম্যাসেজ পাঠানো হয়।









Leave a reply