বাড্ডায় গণপিটুনিতে নারীকে মেরে ফেলার ঘটনায় আটক ৩

|

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় তাসলিমা বেগমকে গণপিটুনিতে হত্যার ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের ৩ ব্যক্তি হলেন জাফর, বাপ্পী ও শাহিন। রোববার রাতে উত্তর বাড্ডার আলী মোড় এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

শনিবার সকালে উত্তর-পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমাকে পিটিয়ে হত্যা করেন স্থানীয়রা। স্কুলটিতে নিজের চার বছরের মেয়ের ভর্তি করানোর জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন তিনি। এ সময় স্কুলের গেটে কয়েকজন অভিভাবক তাকে সন্দেহ করেন। তাকে, প্রধান শিক্ষকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় গুজব ‘ছেলেধরা’ আটকের গুজব ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় কয়েকশত মানুষ স্কুলের গেট ভেঙে তাসলিমাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে গণপিটুনি দেয়। এতে তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় অজ্ঞাত ৪/৫শ’ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা হয়েছে।

নিহত তাসলিমার বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে। রাজধানীর মহাখালীতে ছোট মেয়ে ও মাকে নিয়ে থাকতেন তিনি। দুই বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় তার। ১১ বছরের এক ছেলেও রয়েছে তার। সে বাড্ডায় বাবার সঙ্গে থাকে। এই হত্যাকাণ্ডের জন্য গোটা সমাজকেই দায়ী করছে তাসলিমার পরিবার।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply