মাদ্রাসা ছাত্র হত্যায় তিন কিশোরকে ১৮ বছরের আটকাদেশ

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর
নাটোরে মাদ্রাসা ছাত্র তানভির হত্যার দায়ে তিন কিশোরকে ১৮ বছরের আটক আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল। বুধবার দুপুরে ট্রাইবুন্যালের বিচারক মাইনুল ইসলাম এই রায় দেন। রায়ের সময় অভিযুক্ত তিন কিশোর হুমাইদ হোসেন, বাইজিদ হাসান ও নাইম আদালতে উপস্থিত ছিল।

মামলার বিবরণী থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৫ আগস্ট নাটোর শহরের আলাইপুর এলাকার আশরাফুল উলুম মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণির আবাসিক শিক্ষার্থী তানভীরকে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে শ্বাসরোধ ও জবাই করে হত্যার পর লাশ মাদ্রাসার সেফটি ট্যাংকে ফেলে দেয় একই মাদ্রাসার অভিযুক্ত ওই ৩ শিক্ষার্থী। পরে নিহত তানভীরের বাবা সাইফুল ইসলামের অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব সদস্যরা মাদরাসা সংলগ্ন একটি সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই বছরের ১ সেপ্টেম্বর তানভীরের লাশ উদ্ধার করে এবং ওই দিনই নাটোর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক গুম, হত্যা ও অপহরণের ধারায় রায়ে অভিযুক্ত হুমাইদ হোসেন ও বাইজিদ হাসানকে শিশু আইনের ৩টি ধারায় ১৮ বছর করে আটকাদেশ দেয়। অপর অভিযুক্ত নাইমকে ২টি পৃথক ধারায় ৮ বছরের আটকাদেশ দেয়া হয়।









Leave a reply