টাইগারদের সামনে ৩১৬ রানের চ্যালেঞ্জ

|

আজ লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ খেলতে নামে টাইগাররা। একই সঙ্গে বিশ্বকাপে শেষ বারের মত টস করতে নামেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। ভাগ্য সহায় হয়নি মাশরাফীর। টসে হেরে ফিল্ডিং করতে হয় টাইগারদের।

শুরুতে বল হাতে আসেন মেহেদী মিরাজ ও সাইফুদ্দিন। তাদের দুর্দান্ত শুরুতে পাকিস্তানকে ২৫ ওভার পর্যন্ত চাপে রাখতে সক্ষম হয় মাশরাফী বাহিনী। এর মধ্যে ফখর জামানের উইকেট হারালেও ৪ দশমিক ৬ রেটে রান তোলে পাকিস্তান। সেই সময় তাদের সংগ্রহ ছিলো ১১৬ রান। ফখর জামানের উইকেট নেন সাইফুদ্দিন।

এরপর বাবর আজম ও ইমাম উল হকের জুটি পাকিস্তানকে নিয়ে যায় বড় সংগ্রহের পথে তবে ম্যাচের গল্পটা ভিন্ন হতে পারতো ৫৭ রানে থাকা বাবর এর ক্যাচ মোসাদ্দেক হাতে জমাতে পারলে। সেটা না হওয়ায় এই দুইজনের ১৫৭ রানের জুটি বাংলাদেশকে শেষ পর্যন্ত দাঁড়া করায় বড় চ্যালেঞ্জের সামনে।

৯৬ রানে বাবরকে অসাধারণ এক ডেলিভারিতে ফিরিয়ে মোমেন্টাম বাংলাদেশের পক্ষে নিয়ে আসে সাইফুদ্দিন। তবে অবিচল’ ইমামুল ঠিকই সেঞ্চুরি তুলে নিলেও হিট উইকেট ফিরতে হয় তাকে। ততক্ষনে বড় স্কোরের মহাসড়কে পাকিস্তান। হারিস সোহেলকে ফিরিয়ে দ্রুততম ১০০ উইকেট শিকারের তালিকায় ৪ নম্বরে উঠে আসে মোস্তাফিজুর রহমান। শেষ দিকে ইমাদ ওয়াসিম এর তাণ্ডবে ৩০০ রানের বেশি করে পাকিস্তান। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে ৩১৫ রান তোলে পাকিস্তান।

খরুচে হলেও সাইফুদ্দিন তিন আর টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ৫ উইকেট শিকার করেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান।

পাকিস্তানের দেওয়া লক্ষ্যটা এখন তাড়া করা বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ। যদিও এই বিশ্বকাপে তিন শতাধিক রান চেঞ্জ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে টাইগারদের।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply