গ্রামীণফোন ও রবির ব্যান্ডউইথ কমালো বিটিআরসি

|

নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিটিআরসির দাবি করা বকেয়া অর্থ পরিশোধ না করায় গ্রামীণফোন ও রবির ব্যান্ডউইথ সক্ষমতা আংশিকভাবে কমিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গ্রামীণফোনের ৩০ শতাংশ আর রবির ১৫ শতাংশ ব্যান্ডউইথ কমানোর জন্য ইতিমধ্যে ব্যান্ডউইথ সরবরাহকারী আইআইজি প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ব্যান্ডউইথ বাড়ানো যাবে না। বারবার তাগাদা দেওয়ার পরও গ্রামীণফোন ও রবি সরকারের এ পাওনা অর্থ দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করা হয় চিঠিতে।

বিটিআরসির দাবি অনুযায়ী, গ্রামীণফোনের কাছে পাওনা প্রায় ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। আর রবির কাছে পাওনা প্রায় ৮৬৭ কোটি টাকা। নীরিক্ষা আপত্তি হিসেবে এ টাকা দাবি করে বিটিআরসি। অবশ্য দুই অপারেটরই এই পাওনা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করে। এর আগে একাধিকবার পাওনা আদায়ে দুই অপারেটরকে চিঠি দিয়েছে বিটিআরসি।


এ পদক্ষেপের ফলে গ্রামীণফোন ও রবির ইন্টারনেট সেবাদানের সক্ষমতায় নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।

বিটিআরসির হিসাব অনুযায়ী, মে মাস শেষে দেশে মুঠোফোন গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ১৬ কোটির কিছু বেশি। এর মধ্যে গ্রামীণফোনের গ্রাহক প্রায় ৭ কোটি ৪৮ লাখ। আর রবির গ্রাহক ৪ কোটি ৭৭ লাখ।









Leave a reply