ফিনিশার ধোনি-যাদবের ব্যাটিংয়ে হতাশ ভোগলে

|

দুই ডানা মেলে রীতিমতো উল্কার গতিতে উড়ছিল ভারত। তাদের মাটিতে নামাতে পারছিল না কেউই। অবশেষে থামল টিম ইন্ডিয়ার জয়রথ। ৩১ রানে হারিয়ে কোহলি বাহিনীকে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম হারের তিক্ত স্বাদ দিয়েছে ইংল্যান্ড।

এর পর থেকেই এ ম্যাচ ঘিরে শুরু জল্পনা-কল্পনা। অনেকে এতে পাতানোর গন্ধ পাচ্ছেন। শেষ দিকে দুই ভারতীয় মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি ও কেদার যাদবের ধীরগতির ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

ইংল্যান্ডের ছুড়ে দেয়া ৩৩৮ রানের জবাবে জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ভারতের দরকার ছিল ৭১ রান। ব্যাটিংস্বর্গে সেটি করা অসম্ভব কিছু ছিল না। উপরন্তু ইংলিশ পেস-স্পিন অ্যাটাক ছিল নির্বিষ। তবে সেই রান তাড়া করতে ধোনি ও কেদারের কোনো প্রচেষ্টা দেখা যায়নি। শেষ পর্যন্ত ওই ৩০ বলে ৪০ রান করেন তারা।

স্বভাবতই এতে হতাশ বিশ্ব ক্রিকেটের রথী-মহারথীরা। ব্যতিক্রম নন ভারতের জনপ্রিয় ক্রিকেট বিশ্লেষক ও ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে।

সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে তিনি লিখেছেন, হতাশাজনক ফিনিশিং। শেষ দিকে ১ বলে ১ রান নিয়ে ম্যাচ জেতা যায় না। ধোনি-যাদব একি করল? যেখানে পান্ডিয়া থাকা পর্যন্ত ম্যাচে উত্তেজনা ছিল।

ফিনিশার হিসেবে ধোনির খ্যাতি বিশ্বজোড়া। যাদবকে মানা হয় ভবিষ্যৎ ফিনিশার। সেখানে কেউই লক্ষ্য ছোঁয়ার চেষ্টা করেননি। দ্রুতগতিতে রান তুলতে ব্যাট চালাননি। ধোনি ৩১ বলে ৪২ ও যাদব ১৩ বলে ১২ রান করে অপরাজিত থাকেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply