ইরানের কাছে এস-৪০০ বিক্রি করতে প্রস্তুত রাশিয়া

|

ইরানের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ হস্তান্তর করতে নিজেদের প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে রাশিয়া। যদিও এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিতে রাশিয়ার কাছে ইরান এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদন করেনি।

রাশিয়ার সমরাস্ত্র নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ‘রাশান ফেডারেল সার্ভিস অব মিলিটারি-টেকনিক্যাল কো-অপারেশনের গণমাধ্যম বিভাগের একজন কর্মকর্তা রুশ বার্তা সংস্থা স্পুটনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই কর্মকর্তা বলেন, ইরানসহ অন্যান্য দেশের কাছে এস-৪০০ সরবরাহ করার লক্ষ্যে আলোচনা করতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ২০১৫ সালের ২০ জুন অনুমোদিত প্রস্তাবে ইরানের কাছে এস-৪০০ বিক্রির ব্যাপারে কোনো বিধিনিষেধ না থাকায় মস্কো এ বিষয়ে উদার দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করেছে।

রাশিয়া থেকে এখনও এস-৪০০ ক্রয় না করলেও ইরান রাশিয়া থেকে এর আগের সংস্করণ এস-৩০০ গ্রহণ করেছে।

এর আগে রুশ সংসদের নিম্নকক্ষ দুমার প্রতিরক্ষা বিষয়ক কমিটির উপ-প্রধান আলেকজান্ডার শেরিন ইরানকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ কেনার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র পশ্চিম এশিয়ায় সামরিক উপস্থিতি জোরদারের পাশাপাশি প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে। এ অবস্থায় ইরানের উচিত এস-৪০০ কেনার বিষয়টি বিবেচনা করা।

সম্প্রতি মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের মুখপাত্র ঘোষণা করেছেন, তারা পশ্চিম এশিয়া সামরিক উপস্থিতি জোরদার করবেন। এরই অংশ হিসেবে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এবং ড্রোন মোতায়েন করা হবে। এসব অস্ত্র পরিচালনায় দক্ষ ব্যক্তিদেরকেও পশ্চিম এশিয়ায় আনা হবে বলে তারা জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের বাধা সত্ত্বেও ২০১৭ সালে তুরস্ক রাশিয়া থেকে এস-৪০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ক্রয়ের চুক্তি করে। আগামী জুলাই মাসে রাশিয়ার থেকে গ্রহণ করবে তুরস্ক। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে কয়েকমাস ধরেই টানাপড়েন চলছে।

এমন উত্তেজনার মধ্যে ইরানকে বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাটি গ্রহণ করার প্রস্তাব দিচ্ছে রাশিয়া।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply