মুরসির মৃত্যুর খবর প্রচারে মিসরীয় পত্রিকায় সর্বোচ্চ ৪২ শব্দ

|

মিসরের প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির মৃত্যুর খবর বিশ্বের অধিকাংশ দেশের পত্রিকা গুরুত্বের সঙ্গে প্রচার করেছে। কিন্তু সাবেক এই ইসলামপন্থী প্রেসিডেন্টের মৃত্যুকে নিজ দেশ মিসরের দৈনিকগুলোতে তেমন কোনো গুরুত্ব দেয়া হয়নি।

গত সোমবার আদালতে বিচারের শুনানির ফাঁকে আকস্মিক পড়ে গিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন ৬৭ বছর বয়সী মুরসি। কিন্তু তার মর্মান্তিক মৃত্যুতে ফেরাউনের দেশ মিসরের সংবাদমাধ্যমগুলোতে তেমন তাৎপর্য বহন করেনি।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, মুরসির মৃত্যুর চেয়ে দেশটি যে চলতি বছরের আফ্রিকান কাপ অব নেশনের আয়োজন করছে, সেটিই যেনো গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। কাজেই পত্রিকাগুলোর প্রথমপাতাগুলোতে এই খেলার খবরই বড় করে প্রকাশ করা হয়েছে।

বরং ভেতরের পাতায় ছোট করে ছাপানো হয়েছে এই মৃত্যুর খবরকে। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনগুলোতেও মুরসির কথা তেমন একটা উল্লেখ করা হয়নি। তিনি যে দেশটির প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট, তা উল্লেখের বদলে তার পূর্ণাঙ্গ নাম উচ্চারণ করা হয়েছে।

খুবই ছোট করে, আরবি শব্দে মাত্র ৪২টি শব্দে মুরসির মৃত্যুর খবর প্রচার করেছে মিসরীয় পত্রিকা, রেডিও ও টেলিভিশন।

এ ব্যাপারে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মিসর বিষয়ক গবেষক হুসেইন বৌমি বলেন, দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর কড়া নিয়ন্ত্রণে সেখানকার গণমাধ্যম। নিরাপত্তা সংস্থাগুলো বার্তা কিংবা ইমেল পাঠায় টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে। কোনো একটি বিশেষ বিষয়ে কিংবা ইস্যুতে কীভাবে খবর প্রচার করতে হবে, সে সংক্রান্ত স্ক্রিপ্ট পাঠানো হয়।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply