যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ শুনেই পালালো আসামি

|

তরিকুল ইসলাম হিমেল, ফরিদপুর
ফরিদপুরের সালথা উপজেলার নটখোলা গ্রামে গঞ্জর খাঁ ও মোসা মোল্লা নামে দুই ব্যক্তিকে খুনের ঘটনায় ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রধান করেছে ফরিদপুরের বিশেষ জজ আদালত।

বুধবার দুপুরে ফরিদপুরের বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. মতিয়ার রহমান এ আদেশ দেন। রায় ঘোষণার সময় কারাদন্ডপ্রাপ্ত দের মধ্যে ১১জন আসামি আদালতে হাজির ছিলেন। বাকি দুজন আসামি পলাতক। উপস্থিত ১১ জনের মধ্যে রায় ঘোষণার পরে আদালত চত্বর থেকে আফসার ফকির নামে এক আসামি পালিয়েছে।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলো, আব্দুল মান্নান খা, সুরমান খা, মাজেদ খা, ওয়াজেদ খা, রাশেদ খা, সিদ্দিক ফকির, সোহরাব ফকির, আফসার ফকির, ফজলু ফকির, রহমান খা, রেজাউল খা, জিকির ওরফে জিগির খা, ওসমান ফকির।

বিশেষ জজ আদালতের পিপি এ্যাড. গোলাম রব্বানী বাবু মৃধা জানান, ২০০৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৭টায় সালথা উপজেলার নটখোলা গ্রামে পিয়াজের দানা উত্তোলনকে কেন্দ্র করে একটি শালিস বৈঠক বসে। সে সময় কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে আসামি পক্ষ গঞ্জর খাঁ ও মোসা মোল্লাকে কুপিয়ে হত্যা করে।

পরে নিহতদের ভাই আলাল মিনা বাদি হয়ে মোট ২৭ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে সালথা থানায়।

আসামিদের মধ্যে ১৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও বাকি ১৪ আসামিকে বেকুসর খালাস প্রদান করে আদালত।

আদালতে রায় ঘোষণার পরে কাঠগড়া থেকে হাজত খানায় নেয়ার পথে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আফসার ফকির।

এই বিষয়ে ফরিদপুর কোতয়ালী থানা পুলিশের এএফএম নাসিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অসাবধানতাবসত ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ আসামিকে ধরতে সাড়াশী অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply