৫ বছরেও শেষ হয়নি তাজরীন ফ্যাশনে আগুনের মামলা

|

৫ বছরেও শেষ হয়নি তাজরীন ফ্যাশনে আগুনে শতাধিক শ্রমিকের প্রাণহানির ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার বিচার। বিচারকাজ শুরু হওয়ার ২ বছরে শুনানি হয়েছে ১৯ কার্যদিবস। এর মাঝে ৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দ্রুত মামলার বিচারকাজ শেষ করার দাবি জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

এদিকে  বিভিন্ন গার্মেন্ট শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে নিহতের স্মরণ এবং দায়ী ব্যক্তিদের বিচারের দাবিতে মিছিল বের করা হয়।

হেমন্তের সন্ধ্যায় দানবীয় আগুনে আশুলিয়ার তাজরীন পোশাক কারখানায় শতাধিক শ্রমিক পুড়ে কয়লা হয়েছে ৫ বছর আগের ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর । ২ শতাধিক শ্রমিকের আহত হওয়ার খবর মেলে। কয়েকশ পরিবার হয়ে পড়ে নি:স্ব। অভিযোগ আছে, মালিক দেলোয়ার ঋণের দায় থেকে রেহাই পেতে পরিকল্পিতভাবে এই শ্রমিক হত্যার খেলায় মাতেন।

এদিকে জেলে গিয়ে পরে জামিনে বেরিয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন পোশাক কারখানাটির মালিক। ঐ ঘটনার মামলায় বিচার শুরুর পর ২ বছর পেরিয়ে গেছে।

তদন্ত করে আদালতে দেয়া চার্জশিটে অভিযোগ আনা হয়েছে যে, অবহেলাজনিত কারণেই শ্রমিকদের প্রাণহানী ঘটেছে। আসামি দেলোয়ার প্রভাব খাটিয়ে মামলার সাক্ষীদের আদালতে আসতে দিচ্ছেন না বলেও অভিযোগ উঠেছে।

শুধু সাক্ষীর অভাবেই মামলাটি দিনের পর দিন শুনানির তারিখ পিছিয়ে যাচ্ছে। রাষ্ট্রীয় তাগিদ ছাড়া এই মামলার কাজ দ্রুত শেষ হবে না বলে মনে করেন শ্রমিক সংগঠকরা।

প্রায় ৪৫ লাখ তৈরি পোশাক শ্রমিকের ৩৫ লাখই নারী। এই ঘটনার বিচার না হলে এই শ্রমিকদের মধ্যে অসহায়ত্ব আরও বড় হয়ে দেখা দেবে বলে মনে করেন শ্রমিক সংগঠকরা।









Leave a reply