ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ: বৃষ্টি না হওয়ার জন্য দেবতার কাছে আরতি!

|

চলতি বিশ্বকাপের বৃষ্টিই যেন মূল খেলোয়াড়। প্রতিটি ম্যাচ শুরুর আগে দুপক্ষের খেলোয়াড়, তাদের পারফরমেন্স নিয়ে যত না আলাপ হয়, তার চেয়ে বেশি আলাপ চলে বৃষ্টি হবে, কি হবে না- নিয়ে! এ পর্যন্ত ৪টি ম্যাচ পণ্ড হয়েছে। এটি বিশ্বরেকর্ড। অতীতে কোনো বিশ্বকাপে এমন নজির নেই।

আজ ভারত-পাকিস্তান হাইভোল্টেজ ম্যাচটি নিয়ে শঙ্কা আছে বড় ধরনের। খবর পাওয়া যাচ্ছে, ম্যানচেস্টারের আকাশে আজও মেঘের ঘনঘটা। গতকাল কিছুক্ষণ মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছিল। পরে অবশ্য রোদের দেখা মেলে।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশের মধ্যকার উত্তেজনাকর আজকের ম্যাচটি যাতে পণ্ড না হয় সেই চাওয়া আছে ভক্তদের মাঝে। তবে ভারতের ক্রিকেট ভক্তরা যেন একটা কাটি এগিয়েই আছেন এ ক্ষেত্রে। বৃষ্টি দেবতার কাছে আরতি দিচ্ছেন তারা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, বিভিন্ন মন্দিরে ভক্তরা জড়ো হয়ে আরতি দিচ্ছেন।

বিশ্বকাপে একপেশে হলেও ওয়ানডে লড়াইয়ে পাকিস্তানই এগিয়ে। ১২৭ ম্যাচে পাকিস্তানের ৭৩ জয়ের বিপরীতে ভারতের জয় ৫৪টি। গত বছর এশিয়া কাপে সর্বশেষ দেখায় ভারত হেসেখেলে জিতলেও ইংল্যান্ডের মাটিতে শেষ দেখায় জয় পায় পাকিস্তান। ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে ১৮০ রানে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল সরফরাজ আহমেদের দল।

সেই জয়ের দুই নায়ক ওপেনার ফখর জামান ও পেসার মোহাম্মদ আমির এবারও পাকিস্তানের প্রধান শক্তি। তবে দলীয় পারফরম্যান্স বিচার করলে ভারত এগিয়ে আছে সবদিক থেকেই।

তিন ম্যাচে ১০ উইকেট নেয়া আমির বিশ্বকাপ মঞ্চে ভারতের বিপক্ষে নামার আগে বেশ জোর গলায়ই বললেন, ‘অবশ্যই আমরা ভারতকে হারাতে পারি। মানসিকভাবে আরেকটু শক্তিশালী হতে পারলেই আমরা এই ম্যাচটি জিততে পারি। ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামতে হবে আমাদের।’

এই ম্যাচের চাপকেই অবশ্য প্রেরণা মানছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। বলেন, ‘এই ম্যাচের আবেদন সব সময়ই অন্যরকম। এ ধরনের বড় ম্যাচ আমাদের সেরাটা বের করে আনে। চাপ থাকে মাঠের বাইরে। একবার মাঠে নামলে কোনো কিছুই আর স্পর্শ করে না। খেলাতেই মনযোগ থাকে যা অন্য কিছু আর ভাবতে দেয় না।’









Leave a reply