নেত্রকোণায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে একশো বিশ বস্তা ভিজিএফ চাল ফেরৎ পেল দু:স্থরা

|

স্টাফ রিপোর্টার, নেত্রকোণা:

ভিজিএফ কার্ডধারী সুবিধাভোগী প্রত্যেককে ওজনে আট থেক দশ কেজি বা তারও অধিক কম দিয়ে নেত্রকোণায় আত্মসাৎ করা ৩ হাজার ৬০০ কেজি (১২০ বস্তা) চাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমনা আল মজীদের হস্তক্ষেপে বিতরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নেত্রকোণা জেলার সদর উপজেলার দক্ষিণ বিশিউড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক ভিজিএফের ওই চালগুলো আত্মসাৎ করে দুঃস্থদের ওজনে কম দিচ্ছিলেন ।

পরে বঞ্চিত কার্ডধারীদের মধ্যে এ নিয়ে তুলকালাম শুরু হলে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেন সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমনা আল মজীদ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তিনি জানান, সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসারকে অবগত না করেই চাল বিতরণ শুরু করেছিলেন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিদ্দিক। সমাজসেবার একজন কর্মকর্তা ট্যাগের দায়িত্বে ছিলেন।

ইউনিয়নটিতে ভিজিএফ পাওয়া ৮২৭ জন উপকারভোগী রয়েছেন যারা ভিজিএফের চাল পান। পরে ইউএনওর উপস্থিতিতে কম পাওয়া প্রত্যেককে তাদের প্রাপ্য বাকি চাল ফেরৎ দেয়া হয়। পরবর্তীতে এ ধরণের কর্মকান্ডে সম্পৃক্তার অভিযোগ ও সত্যতা পাওয়া গেলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে নেত্রকোণা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান জানান, ভিজিএফের চাল কম দেয়ার বিষয়টিকে কেন্দ্র করে এলাকায় কার্ডধারীদেের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এ সময় কার্ডধারী শাহ্জাহান মিয়া, নাজিম উদ্দিনসহ সুবিধাভোগী আরো অনেক নারী-পুরুষ অভিযোগ করেন, ট্যাগ অফিসারকে ম্যানেজ করে দলের প্রভাব খাঁটিয়ে চেয়ারম্যান সিদ্দিক আমাদেরকে ঠকিয়ে চাল আত্মসাৎ করেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply