দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩১২ রানের টার্গেট দিলো ইংল্যান্ড

|

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৩১১ রানের বিশাল সংগ্রহ গড়েছে ইংল্যান্ড। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৯ রান করেন ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। এছাড়া অধিনায়ক ইয়ন মরগান ৫৭, জেসন রয় ৫৪ ও জো রুট ৫১।

বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের ওভালে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে টস জিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু ফ্লেসিস। ইনিংসের শুরুতে ১ রানে এক উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় ইংল্যান্ড।

শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে দলকে খেলায় ফেরান জেসন রয় ও জো রুট। দ্বিতীয় উইকেটে তাড়া ১০৬ রান করে দলকে খেলায় ফেরান। জোড়া ফিফটির পর মাত্র ৪ রানের ব্যবধানে দুজনেই সাজঘরে ফেরেন।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে প্রথম উইকেটটি পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার লেগ স্পিনার ইমরান তাহির। ইনিংসের দ্বিতীয় বলে ইংলিশ ওপেনার জনি বেয়ারস্ট্রোকে সাজঘরে ফিরিয়ে তিনি এ সাফল্য পেয়েছেন।

এরপর দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে জেসন রয়কে সাজঘরে ফেরান আন্দিল ফেহলুকাওয়ো। তার বলে ফাফ ডু প্লেসিসের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন রয়। তার আগে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৫তম ফিফটি গড়েন। তবে একদিনের ক্রিকেটে ৮টি সেঞ্চুরি করেছেন রয়।

জেসন রয়ের বিদায়ের চার রানের ব্যবধানে ফেরেন জো রুট। কাগিসো রাবাদার বলে জেপি ডুমিনির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। তার আগে ৫৯ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৫১ রান করে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে এটা তার ৩১তম ফিফটি। এর আগে ওয়ানডেতে ১৪টি সেঞ্চুরি করেছেন ইংল্যান্ডের এ টেস্ট অধিনায়ক।

ইয়ন মরগান ও বেন স্টোকসের অনবদ্য ব্যাটিং। ১ উইকেটে ১০৭ রান করা ইংল্যান্ড এরপর ৪ রানের ব্যবধানে হারায় দুই উইকেট।

১১১ রানে তিন ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেন মরগান ও স্টোকস। তাদের কল্যাণে পরপর দুই উইকেট হারিয়ে চাপের মধ্যে পড়ে যাওয়া ইংল্যান্ড খেলায় ফিরতে সক্ষম হয়।

চতুর্থ উইকেটে ১০৬ রানের জুটি গড়েন তারা। জোড়া ফিফটি তুলে নেন মরগান ও বেন স্টোকস। ক্যারিয়ারের ৪৬তম ফিফটি তুলে নেয়ার পর ইমরান তাহিরের দ্বিতীয় শিকারে পরিনত হন ইংল্যান্ড অধিনায়খ মরগান। তার আগে ৬০ বলে চারটি চার ও তিনটি ছক্কায় ৫৭ রান করেন।

ডু প্লাসিস বলেন, আমাদের কিছু চমৎকার ফাস্ট বোলার রয়েছে। কাজেই আজকের আয়োজনটি আমাদের জন্য খুবই ভালো হবে বলে আশা রাখছি।

একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা ইংল্যান্ডকে এ বিশ্বকাপে ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নেমেছে। বিবিসি স্পোর্টসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ফেভারিট তকমা উপভোগ করছেন বলে জানান মরগান।

তিনি বলেন, কোনো একটা কারণেই আমাদের ফেভারিটের তকমা দেয়া হচ্ছে। যে মানের পারফরম্যান্স আমরা দেখিয়েছি, বিশেষ করে গত দুই বছরে ঘরের মাঠে, সম্ভবত সেটাই আমাদের ফেভারিট বানিয়েছে।

তার মতে, টুর্নামেন্ট চলার সময় সেটা বদলে যেতে পারে। ভালো সম্ভাবনা আছে যে আমরা খুব কঠিন কিছু চ্যালেঞ্জের এবং ম্যাচের মুখে পড়ব যেগুলোতে আমরা হারব। আর কিছু ম্যাচে পিছিয়ে পড়ে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে। কিন্তু টুর্নামেন্টের শুরুতে ফেভারিটের তকমা আমাদের সঙ্গে নিশ্চিতভাবেই ঠিক আছে।

ইংল্যান্ড: জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, ইয়ন মরগান, জস বাটলার, বেন স্টোকস, মঈন আলী, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ, জোফরা আর্চার ও লিয়াম প্লানকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকা: হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক, অ্যাডান মার্কওরাম, ফাফ ডু প্লে সিস, রিশি ভেন দার দাসুন, জেপি ডুমিনি, আন্দিল ফেহলুকাওয়ো, ডোয়েন প্রিটোরিয়াস, কাগিসো রাবাদা, ইমরান তাহির ও লুঙ্গি এনডিগি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply