স্ত্রী সন্তান না নিতে চাওয়ায় ছেলের গলা কেটে হত্যা

|

রাজশাহীর পুঠিয়ায় স্ত্রী নতুন করে সন্তান নিতে না চাওয়ার ঘটনায় নেল কাটারের চাকু দিয়ে রিফাত হোসেন (৭) নামের এক শিশুকে গলা কেটে হত্যা করেছে তারই সৎবাবা। এ ঘটনায় সৎবাবা মোহাম্মদ আলীকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার সেনভাগ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকিল আহমেদ জানান, মোহাম্মদ আলী সাত বছর আগে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। এর পূর্বে তিনি হিন্দু ছিলেন। সাত মাস হলো  বুলবুলি নামের এক মেয়েকে তিনি বিয়ে করেন। কিন্তু বুলবুলির এর আগে আরেকটা বিয়ে হয়।  প্রথম স্বামীকে তালাক দিয়ে শিশু রিফাত নিয়ে চলে আসেন মোহাম্মদ আলীর সংসারে।

মোহাম্মদ আলী পুলিশকে জবানবন্দিতে বলেন, তাঁর স্ত্রী বুলবুলি নতুন করে সন্তান নিতে না চাওয়ায় সৎসন্তান রিফাতকে হত্যা করেছেন তিনি। হত্যার আগে রিফাতকে তরমুজ কিনে দেওয়ার নাম করে নাটোর শহরে নিয়ে যান মোহাম্মদ আলী। পরে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের পুঠিয়ার সেনভাগ এলাকায় রিফাতকে এনে নেইল কাটারের চাকু দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন তিনি। এরপর বাসায় চলে যান মোহাম্মদ আলী। তবে বাসায় গিয়ে পরিবারের লোকজন রিফাতের কথা জানতে চাইলে তিনি রিফাতকে দেখেননি বলে দাবি করেন। একপর্যায়ে রিফাত সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে বলে পরিবারের সদস্যদের জানান মোহাম্মদ আলী। তাঁর কথামতো পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে রিফাতের গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন।

ওসি শাকিল আহমেদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রিফাতের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে। পরে মোহাম্মদ আলীকে আটক করা হয়। পরে তাঁর বিরুদ্ধে স্ত্রী বুলবুলি খাতুন বাদী থানায় হত্যা মামলা করেছে। ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ বুধবার তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে।









Leave a reply