এক নজরে বিশ্বকাপের যত হ্যাটট্রিক

|

১৯৭৫ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের ইতিহাসে হ্যাটট্রিক হয়েছে নয়টি। একমাত্র লাসিথ মালিঙ্গা করেছেন দুটি হ্যাটট্রিক। এর মধ্যে একটি ২০০৭ বিশ্বকাপে চার বলের ব্যবধানে চার উইকেটে।

বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাটট্রিক হয় চতুর্থ আসরে। ভারতের চেতন শর্মা পরপর তিন বলে বোল্ড করেন নিউজিল্যান্ডের কেন রাদারফোর্ড, ইয়ান স্মিথ ও এইন চ্যাটফিল্ডকে। পরের দুটি বিশ্বকাপে কোনো হ্যাটট্রিক হয়নি।

১৯৯৯ বিশ্বকাপে স্পিনার সাকলায়েন মুশতাক জিম্বাবুয়ের তিন ব্যাটসম্যানকে পরপর তিন বলে আউট করে পাকিস্তানকে তুলে দেন সেমিফাইনালে।

২০০৩ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ হ্যাটট্রিকের শিকার হয়। শ্রীলংকার পেসার চামিন্দা ভাস প্রথম বোলার হিসেবে কোনো ওডিআইর প্রথম তিন বলে তিনটি উইকেট নেন।

চার বছর পর আরেক বিশ্বকাপে ভাসের স্বদেশি লাসিথ মালিঙ্গা হ্যাটট্রিক করেন। ২১০ তাড়া করতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ৩২ বলে মাত্র চার রান। হাতে পাঁচ উইকেট। এ সময় অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে বল তুলে দেন মালিঙ্গার হাতে। ঝাঁকড়া বাহারি চুলের এই ফাস্ট বোলার অঘটন প্রায় ঘটিয়ে ফেলেছিলেন। চার বলে চার উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে তিনি ২০৭/৯-এ পরিণত করেন। ৯ নম্বর প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান রবিন পিটারসন স্লিপ দিয়ে চার মেরে দলকে জিতিয়ে দেন।

বিশ্বকাপে কোনো হেরে যাওয়া দলের প্রথম বোলার হিসেবে মালিঙ্গা হ্যাটট্রিক করেন। ২০১১ বিশ্বকাপে প্রথম বোলার হিসেবে নিজের দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক করেন মালিঙ্গা। এবার তিনি হ্যাটট্রিক করেন কেনিয়ার বিপক্ষে।

যমুনা অনলাইন/ইউএমএম









Leave a reply