শিশু ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ায় ইউপি সদস্যসহ ৬ জনের নামে মামলা

|

স্টাফ রিপোর্টার,মানিকগঞ্জ
যমুনা টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের পর মানিকগঞ্জের ঘিওরে শিশু ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টার অভিযোগে ইউপি মেম্বারসহ ৬ জনের নামে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে বিল্লাল হোসেন নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে শিশুটির মা বাদী হয়ে ঘিওর থানায় এই মামলা দায়ের করেন। বুধবার শিশু ধর্ষণের ঘটনা এবং সমাজপতিদের ধামাচাপা দেয়ার বিষয়ে যমুনা টেলিভিশনে একটি প্রতিবেদন প্রচার হয়।

মামলার আসামিরা হলেন-বড়টিয়া ইউপি সদস্য মোঃ রমজান আলী, বিল্লাল হোসেন, বেগম,বাবু ও বাকাবিল্লাসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, আসামিরা ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দুলালকে বাঁচাতে এবং ঘটনা ধামাচাপা দিতে একটি শালিস বৈঠকের আয়োজন করে। শালিসে দুলালকে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর বাদিকে বলা হয় যা হবার তাই হয়েছে এ নিয়ে থানা পুলিশ কিম্বা কাউকে কিছু জানানোর প্রয়োজন নেই।

প্রসঙ্গত, গত ১২ মে ঘিওর উপজেলার হিজুলিয়া গ্রামে দশ বছরের এক শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে স্থানীয় ইউপি মেম্বারসহ গ্রামের মাতব্বররা শালিসি বৈঠকের আয়োজন করে। শালিসে অভিযুক্ত দুলালকে লাখ টাকা জরিমানা করে সেই টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগবাটোয়ারা করে নেয় বলে অভিযোগ ওঠে। ঘটনার এক সপ্তাহ পর সোমবার ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেন শিশুটির মা। পরদিন ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।অভিযুক্ত দুলাল পলাতক রয়েছে।









Leave a reply