৩ বছর ধরে শিকলে বাঁধা বন্দী জীবন এক মায়ের

|

দুই সন্তানের মা সত্তর ঊর্ধ্ব দুর্ভাগা রিজিয়া বেগম ৩ বছর ধরে শিকলে বন্দী। কোমড়ে লোহার শিকলে তালা দিয়ে বেধে রাখা হয়েছে বেড়াবিহীন একটি জীর্ণ ঘরে। খেতে দেওয়া হয় মাত্র এক বেলা। না খেতে পেয়ে শুকিয়ে যাচ্ছেন ৩ বছর ধরে। অর্থাভাবে উন্নত চিকিৎসা না করাতে পারায় মানুসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন এ বৃদ্ধা মা।

এমনই করুন হৃদয় বিদারক ঘটনাটি ঝালকাঠির রাজাপুরের উত্তর বারবাকপুর গ্রামে। বর্তমানে বাড়ির পরিত্যক্ত ভিটায় অরক্ষিত অবস্থায় এমন দুঃখ দুর্দশায় দুর্বিসহ জীবনমৃত্যুর প্রহর গুনছেন এই বৃদ্ধা রিজিয়া বেগম।

প্রায় ২০ বছর পূর্বে স্বামী আব্দুল নিজাম উদ্দিন শেখ মারা যান। এক ছেলে আব্দুর রাজ্জাক শেখ পেশায় কামার এবং মেয়ে সালমা বেগম গৃহিনী। সালমার স্বামী উপজেলার রোলা গ্রামের দিনমজুর শুক্কুর হাওলাদার। আর্থিক অবস্থায় খারাপ হওয়ায় মেয়ে সালমাও মায়ের তেমন খোঁজখবর নিতে পারেন না।

ছেলে রাজ্জাকও কামারের কাজ করে কোনমতে ৪ সন্তানের পরিবার নিয়ে অতিকষ্টে সংসার চালাচ্ছে। পাশাপাশি সাধ্যমত কোন মতে মায়ের ভরনপোষণ ও সেবা করছেন। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে বহুদিন ধর্ণা দিয়েও কোন সাহায্য পাননি। পায়নি বৃদ্ধ ভাতা, বিধবা ভাতা।

সোহাগ হাওলাদার, ইউএনও, রাজাপুর, ঝালকাঠি- ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনি বৃদ্ধা রিজিয়ার খোঁজ খবর নিয়েছেন। তাকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।”









Leave a reply