নারী দেহরক্ষীকে বিয়ে করলেন থাই রাজা

|

থাইল্যান্ডের রাজা হিসেবে অভিষেক হওয়ার কয়েক দিন আগে মাহা ভাজিরালংকর্ন বুধবার তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনীর উপপ্রধানকে বিয়ে করে রানির মর্যাদা দিয়েছেন।

নিজের নতুন স্ত্রীকে তিনি রানি সুথিদা উপাধি দেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে।

রাজকীয় এক ফরমানে রাজার নতুন বিয়ে কথা জানা যায়। পরে থাই টেলিভিশন চ্যানেলের খবরেও বিয়ের অনুষ্ঠানের ভিডিও ফুটেজ দেখা গেছে।

৬৬ বছর বয়সী ভাজিরালংকর্ন রাজা দশম রামা হিসেবে পরিচিত। ২০১৬ সালে তারা বাবা রাজা ভূমিবল আদুলাদিজের মৃত্যুর পর সাংবিধানিকভাবে তিনি রাজা হন।

শনিবার বিস্তৃত বৌদ্ধ ও ব্রাহ্মণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মুকুট পরার কথা রয়েছে তার। তার অভিষেক উপলক্ষে পরের দিন ব্যাংককে একটি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।

২০১৪ সালে থাই এয়ারওয়েজের সাবেক বিমানবালা সুথিদা তিদজাইকে তার নিরাপত্তা ইউনিটের উপকমান্ডার হিসেবে নিয়োগ দেন।

এর আগে রাজপরিবারের বিভিন্ন পর্যবেক্ষক ও বিদেশি গণমাধ্যমে সুথিদার সঙ্গে তার প্রেমের কথা বললেও রাজপ্রাসাদ কখনও তা স্বীকার করেনি।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে সুথিদাকে রাজকীয় থাই আর্মির একজন পূর্ণ জেনারেলের মর্যাদা দেন রাজা। পরের বছর তাকে উপকমান্ডার হিসেবে নিয়োগ দেন।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply