তারেক রহমানকে দেশে ফেরাতে যুক্তরাজ্যের আদালতের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত: ব্রিটিশ হাই কমিশনার

|

তারেক রহমানকে দেশে ফেরাতে যুক্তরাজ্যের আদালত কিংবা পুলিশের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাই কমিশনার রবার্ট ডিকসন। যমুনা টেলিভিশন পরিদর্শনে এসে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক তৎপরতায় বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য সম্পর্ক আরও গভীর হবে বলে আশাবাদ জানান ডিকসন।

আজ সকালে সংবাদ ভিত্তিক চ্যানেল যমুনা টেলিভিশনে পরিদর্শনে আসেন বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন।
ব্রিটিশ সরকারের এই কূটনীতিক মনে করেন, গণমাধ্যম গণতন্ত্রের অন্যতম পরিপূরক। তাই বাংলাদেশের গণমাধ্যমে নিয়ে তার আগ্রহ একটু বেশি। সে লক্ষ্যেই যমুনা টেলিভিশনে এসে ঘুরে দেখেন সার্বিক সম্প্রচার কার্যক্রম। এসময় গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে কুশল বিনিময়ের পাশপাশি আলোচনা করেন গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে।

যমুনা টেলিভিশনের সাথে আলাপকালে রবার্ট ডিকসন জানান, বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বেশ গভীর। আঞ্চলিক রাজনীতিতে বাংলাদেশ বেশ গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্র উল্লেখ করে ডিকসন আরও বলেন, সম্পর্ককে অনন্য উচ্চতায় নিতে রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।

তারেক রহমানকে দেশে ফেরানো প্রসঙ্গে ডিকসন জানান, যুক্তরাজ্য সরকার কারো ব্যক্তিগত বিষয়ে মন্তব্য করে না; তবে বাংলাদেশ সরকারের আবেদন বিবেচনায় নেয়া হবে। পুরো বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ব্রিটিশ আদালত আর পুলিশ।

দু’মাস আগে আসা এই ব্রিটিশ কূটনীতিকের বেশ ভালো লেগেছে বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য। সাধারণ মানুষ আর প্রকৃতির মধ্যে অনন্য এক মৈত্রী রয়েছে দিলেন এমন পর্যবেক্ষণও।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সাথে “টক উইথ রবার্ট ডিকসন” শিরোনামে বিশেষ টক শো প্রচারিত হবে যমুনা টেলিভিশনে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply