স্কুলে জন্মদিন পালনের নামে স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানী, শিক্ষক আটক

|

স্টাফ রিপোর্টার,গোপালগঞ্জ
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার করপাড়া হাইস্কুলের এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মিরাজ হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে, অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক মিরাজ হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

আজ বুধবার দুপুরে গোপালগঞ্জ সদর থানার বৌলতলী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ স্কুল থেকে ওই শিক্ষককে আটক করে। এ সময় এ ঘটনায় সহায়তাকারী অপর শিক্ষক পরিমল বিশ্বাস পালিয়ে যায়।

জানাগেছে, গত ২৪ এপ্রিল শ্রেণি কক্ষে ওই স্কুলের সহাকারী শিক্ষক পরিমল বিশ্বাসের জন্ম দিন পালন করা হয়। পরিমল বিশ্বাস তার জন্ম দিনের কেক কেটে চলে যাবার পর সহকারি শিক্ষক মিরাজ হোসেন ছাত্রীদের জোর করে কেক খাইয়ে দেয়া ও ছাত্রীদের সাথে সেলফি তোলার এক পর্যায়ে এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানি ঘটায়।

ওই ছাত্রীর অবিভাবকরা বিষয়টি স্কুলকর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে জানালে কোন বিচার না পেয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর গত ২৮ এপ্রিল লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

এদিকে,লিখিত অভিযোগ পেয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ৩০ এপ্রিল এক জরুরী সভা করে তদন্তের জন্য তিন সদস্যের কমিটি গঠন করে আজ ১ মে’র মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের সিদ্ধান্ত হয়।
বিষয়টির পরবর্তী সিদ্ধান্তের জন্য আজ বুধবার স্কুল প্রাঙ্গনে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে এক জরুরী সভা শুরু হয়। এমন সময়ে গোপালগঞ্জ সদর থানার বৌলতলী তদন্ত কেন্দ্র পুলিশ স্কুল থেকে ওই শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। এ সময় এ ঘটনায় সহায়তাকারী অপর শিক্ষক পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে করপাড়া হাইস্কুলের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ কামরুল ইসলাম জানান, ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল।ম্যানেজিং কমিটিতে তদন্ত কমিটির সুপারিশ ও অন্যান্য দিক বিবেচনা করে অভিযুক্ত শিক্ষক মিরাজ হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ থানার ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম জানান, সদর উপজেলার করপাড়া হাইস্কুলের এক ছাত্রীর শ্লীলতাহনীর দায়ে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মিরাজ হোসেনকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।









Leave a reply