ডেটিং সাইটে পরিচয়, তারপর খুন: সিরিয়াল কিলিং এর দায়ে অভিযুক্ত গ্রীক সেনা কর্মকর্তা

|

খুনির দেয়া তথ্য অনুসরণ করে সাইপ্রাসের অরোন্টা অঞ্চলে মৃতদেহের সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ

সাত নারী ও শিশুকে হত্যা করার দায়ে সাইপ্রাসে এক ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। বলা হচ্ছে এটিই দেশটির প্রথম সিরিয়াল কিলিং এর ঘটনা।

এর মাঝে দুটি দেহ এ মাসের শুরুতে একটি খনি থেকে উদ্ধার করা হয় এবং তৃতীয় দেহটি গতকাল বৃহস্পতিবার অন্য আরেক জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয়।

সিরিয়াল কিলিং এর দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তি গ্রীক সাইপ্রাসের ৩৫ বছর বয়স্ক একজন সেনা কর্মকর্তা। তবে পুলিশ এখনো তার পরিচয় প্রকাশ করেনি।

পুলিশের তদন্তকারীদল বৃহস্পতিবার তার দেয়া তথ্য অনুসরণ কর রাজধানী নিকোসিয়ার নিকটবর্তী একটি এলাকা থেকে তৃতীয় মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করে। খুনি এই সেনা কর্মকর্তা ২০১৭ সালে একটি ডেটিং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পরিচিত হয় এই মহিলার সাথে।

এখন পর্যন্ত যে তিনটি মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে তারা সবাই ফিলিপাইনো বংশোদ্ভূত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশের হাতে গ্রেফতারের পর সে আরো খুনের তথ্য দেয়। বর্তমানে পুলিশ তার দেয়া তথ্য অনুসরণ করে অন্য মৃতদেহগুলোরও সন্ধান করছে। আরো তথ্য উদ্ধারের জন্য তার রিমান্ড চাওয়া হয়েছে একইসাথে ব্রিটিশ গোয়েন্দা দলেন সহযোগীতাও চাওয়া হয়েছে সাইপ্রাস পুলিশের পক্ষ থেকে।

পুলিশ বলছে, হত্যাকান্ডের শিকার এক নারী ভারতীয় অথবা নেপালি বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর অপর নারী রোমানিয়ান বলে জানা গেছে, ওই নারীর সাথে তার আট বছরে কন্যাকেও হত্যা করেছে এই খুনি। অপরদিকে তার দ্বারা হত্যার শিকার অপর এক নারীর ছয় বছরের শিশু কন্যাও নিখোজ বলে জানিয়েছে পুলিশ।

যমুনা অনলাইন/ইএ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply