আমার মক্কেলের আর্থিক অবস্থা ভালো না: গ্রীন লাইন মালিকের আইনজীবী

|

বাস চাপায় পা হারানো রাসেল সরকারকে ৫০ লাখ টাকা দিতে বলা হলেও আজ আদালতের মাধ্যেমে ৫ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করেছে গ্রীনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ।

এর আগে আজ নির্ধারিত তারিখে টাকা দিতে বলা হলেও দেয়নি গ্রীন লাইন পরিবহন পরে সকালে ৩ টার মধ্যে টাকা না দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে জানায় হাইকোর্ট। এরপরই পাঁচ লাখ টাকার চেক প্রদান করলো কর্তৃপক্ষ।

এদিকে গ্রীন লাইন পরিবহনের মালিক আলাউদ্দিনের আইনজীবী ওয়াজি উল্লাহ বলেছেন, ‘উনি (আলাউদ্দিন) আদালতের কাছে একটা নিবেদন করেছেন যে, তিন বছর ধরে তার ব্যবসায় ক্ষতির মুখে আছেন। সাড়ে তিন কোটি টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।’

আইনজীবী জানান, এমতাবস্থায় তার আর্থিক ক্ষতির কথা বিবেচনা করে গ্রীন লাইনের মালিক আদালতকে বলেছেন, ‘বিচারক যদি মনে করেন আমি আদালতের নির্দেশ পালন করতে ব্যর্থ হচ্ছি তাহলে আমাকে রক্ষার জন্য হলেও আরেকটা নির্দেশ দিয়ে আমার ব্যবসাটাও বন্ধ করে দিন।’

আইনজীবী আরও জানান, আদালতের আদেশ পালনের জন্য এক মাস সময় চাওয়া হয়েছে। আদালত সময় মঞ্জুর করেছেন।

আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ক্ষতিপূরণের বাকি ৪৫ লাখ টাকা কবে দেয়া হবে সে বিষয়ে আইনজীবীর কাছে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার মক্কেলের আর্থিক অবস্থা ভালো না। তিনি এতো টাকা কিভাবে দেবেন। এটা তিনি আদালতকেও বলেছেন বিবেচনার জন্য।

মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে কথা কাটাকাটির জেরে গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসচালক ক্ষিপ্ত হয়ে প্রাইভেটকার চালকের ওপর দিয়েই বাস চালিয়ে দেয়। এ ঘটনায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হলে গত বছরের ১৪ মে বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল জারি করেছিলেন।

এরপর হাইকোর্ট রুলের শুনানি নিয়ে ভিন্ন একটি বেঞ্চ রাসেলকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ৫০ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে রাসেলের চিকিৎসা-সংক্রান্ত যাবতীয় খরচ গ্রীন লাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে বহন করতে এবং তার কৃত্রিম পা লাগানোর ব্যবস্থা করতে বলা হয়।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply