ঢাকায় পৌঁছেছে ফায়ারম্যান সোহেল রানার মরদেহ

|

বনানী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধারকাজে আহত এবং পরবর্তীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিঙ্গাপুরে নিহত ফায়ারম্যান সোহেল রানার মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে।

সোমবার (০৮ এপ্রিল) রাত পৌনে এগারোটার দিকে সোহেল রানার মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।

রাতে সোহেলের মরদেহ ঢাকা সেনানিবাসে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে বলে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় ফায়ার সার্ভিসের সদর দপ্তরে সোহেলের জানাজা, পরে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ইটনায়

গতকাল রবিবার (৭ এপ্রিল) বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ১৭ মিনিটে সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সোহেল রানা।

সোহেল রানার বাড়ি কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলায়। বাবা নূরুল ইসলাম ও মা হালিমা খাতুন। চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে রানা দ্বিতীয়। ২০১৫ সালে ফায়ার সার্ভিসে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।

গত ২৮ মার্চ বনানীর এফ আর টাওয়ারের আগুন লাগে। ওই নেভাতে ও ভবনে আটকে পড়া ব্যক্তিদের উদ্ধারকাজে অংশ নিয়েছিলেন কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান সোহেল রানা।

যমুনা অনলাইন: আরএম


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply