বিষাক্ত ধোঁয়াশায় ছেঁয়ে গেছে দিল্লি, সব স্কুল রোববার পর্যন্ত বন্ধ

|

ধুলো-বালির বিষাক্ত ধোঁয়ায় কুয়াশাচ্ছ্ন্ন হয়ে পড়েছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি। স্বাস্থ্যের জন্য চরমভাবে ক্ষতিকর এই বিষাক্ত ধোঁয়াশা থেকে শিশুদেরকে বাঁচাতে প্রথমে আজ বুধবার রাজধানীর সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছিল সরকার। কিন্তু পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকায় নতুন আদেশে আগামী রোববার পর্যন্ত দিল্লির সব স্কুল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

গত তিন দিন ধরে এই অবস্থা বিরাজ করছে বিশ্বের সবচেয়ে দুষিত শহরটিতে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, আজ বুধবার সকাল ৮টার সময়ও রাজধানীর আনন্দ বিহার, আরকে পুরম, মন্দিরমার্গ, দ্বরকা, পাঞ্জাবি বাগের রাস্তাঘাট প্রায় অন্ধকার ছিল। কোনো কোনো জায়গায় একশো মিটার দূরত্বের কোনো জিনিস দেখা যাচ্ছিল না। বিমান, ট্রেন পরিষেবা ব্যাহত হচ্ছে তিন দিন থেকেই। বাধ্য হয়েই কেজরিওয়াল সরকার বুধবার দিল্লির সব প্রাথমিক স্কুল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করে।

গোটা রাজাধানী বিষাক্ত ধোঁয়াশায় ঢেকে ‌যাওয়ায় ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীতে মোডিক্যাল এমার্জেন্সি ঘোষণা করেছিল। বলা হয়েছিল, সকালের বিষাক্ত ধোঁয়াশার মধ্যে জগিং বা সাইক্লিং করা ‌যাবে না। ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুন্যালও গোটা বিষয়টিকে জরুরি অবস্থা বলে ঘোষণা করেছে। ‌যারা বাইরে বেরোচ্ছেন তাদের দূষণরোধী মুখোশ ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সাধারণত বাতাসে বিষাক্ত ধূলিকণার (২.৫ মাইক্রেমিটারের কম) মাত্রা ৩০০ প‌র্যন্ত হলে তা সহন‌ীয়। কিন্তু সিস্টেম অব এয়ার কোয়ালিটি অ্যান্ড ওয়েদার ফোরকাস্টিং অ্যান্ড রিসার্চ (সফর) এর দাবি, বুধবার দিল্লির আনন্দবিহারে বাতাসে ধূলিকণার মাত্রা ছিল ৬৮৬, মন্দিরমার্গে ৭৬৮, আরকে পুরমে ৪৬০ ও পাঞ্জাবি বাগে ছিল ৬৭৯।









Leave a reply