পাঁচ তারকা হোটেল দখল করে আটকে রাখা হয়েছে সৌদি প্রিন্সদেরকে!

|

এক দিনের ব্যবধানে পাঁচ তারকা হোটেল হয়ে গেল কারাগার! সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের ক্ষমতা কুক্ষিগত করার অভিযানে গত শনিবার আটক হন রাজপরিবারের অন্তত ১৭ জন সদস্য। সাথে আছেন ৪ জন বর্তমান মন্ত্রী এবং এক ডজনের বেশি সাবেক মন্ত্রী।

রাজকীয় ডিক্রিতে জানানো হয়েছে, তাদের সবাইকে দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। কারণ যাইহোক, তারা এখন বন্দী এটাই বাস্তবতা। কিন্তু যেই সেই বন্দী তো আর নন, রাজপরিবারের সদস্য তারা! ফলে তাদের কারাগারও হওয়া চাই ‘রাজকীয়’!

সিএনএন ও রয়টার্স জানাচ্ছে, কারাগারে রাজকীয় হালেই আছেন সৌদি রাজবন্দীরা। আপাতত রিয়াদের সবচেয়ে নামকরা পাঁচ তারকা হোটেলের দখল নিয়েছে সৌদি সরকার। ‘রিটজ কার্লটন’ নামের হোটেলটিতে এখন দিন যাপন করছেন আকষ্মিক সরকারি রোষানলে পড়া যুবরাজ ও মন্ত্রীরা। যাদের মধ্যে আছেন বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী প্রিন্স আল-ওয়ালিদ বিন তালাল।

গত মে মাসে সৌদি সফরে এসে এই হোটেলেই উঠেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ৫২ একর জায়গার উপর নির্মিত বিলাসবহুল হোটেলটিতে ৪৯২টি কক্ষ রয়েছে। আছে বেশ কয়েকটি বিশ্বমানের সুবিধা সম্বলিত রেস্টুরেন্ট। এছাড়া পুরুষদের জন্য রয়েছে বিশেষ রকমের ‘স্পা’র ব্যবস্থা।

সিএনএন জানিয়েছে, চলতি নভেম্বর মাসের জন্য সব ধরনের বুকিং নেয়া বন্ধ ঘোষণা করে ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে হোটেল কর্তৃপক্ষ। তবে বুকিং বন্ধের কারণ উল্লেখ না করে বলা হয়েছে ‘অনিবার্য কারণ বশতঃ’! যদিও ১ ডিসেম্বর থেকে আবার বুকিং নেয়া হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।

গত সোমবার থেকে রিটজ কার্লটনের সাথে ইন্টারনেট, মোবাইল ও ফোনসহ সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন দেয়া হয়েছে। রিটজ কার্লটনের ভেতর ও বাইরের কিছু ছবি দেয়া হল হোটেলটির ওয়েবসাইট থেকে-

রিটজ কার্লটনের সুইমিং পুল

হোটেলের একটি রেস্টুরেন্ট

আরেকটি রেস্টুরেন্টের ভেতরের দৃশ্য

একটি বেডরুম

রিটজ কার্লটন হোটেলের বাইরের দৃশ্য





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply