বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রত্যাহারে শিক্ষার্থীদের আলটিমেটাম

|

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ও শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশনা দেয়া হলেও শুক্রবার পর্যন্ত হল ত্যাগ করেনি শিক্ষার্থীরা। নতুন করে শিক্ষার্থীরা ‘ভিসি বিরোধী’ আন্দোলন শুরু করেছে।

শুক্রবার সকাল থেকে কোনো বিক্ষোভ করা না হলেও বিকাল ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। এরপর সন্ধ্যায় তারা একটি মশাল মিছিল করে। এ সময় তারা ভিসি ড. এসএম ইমামুল হককে প্রত্যাহার করে নেয়ার দাবি জানান।

আন্দোলনরত ছাত্র লোকমান হোসেন জানান, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজন করা হলেও শিক্ষার্থীদের এই সম্পর্কে কোনো কিছু জানানো হয়নি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আন্দোলনের সূচনা হয়। তবে পরে ভিসি সকল শিক্ষার্থীকে রাজাকারের বাচ্চা বলে গালি দেয়ায় এই আন্দোলন আরও বেগবান হয়।

তিনি বলেন, আমাদের আন্দোলনে ভয় পেয়ে ভিসি বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশনাও দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের ১১ দফা দাবি ও ভিসিকে প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত আমরা হলে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আন্দোলনের চতুর্থ দিনে বিকালে শহীদ মিনারে অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়েছে এবং সন্ধ্যায় ভিসিকে প্রত্যাহার করে নেয়ার দাবিতে মশাল মিছিল করা হয়েছে ক্যাম্পাসে।

যতদিন পর্যন্ত আমাদের দাবি মেনে নেয়া না হবে ততদিন আন্দোলন চলবে বলে জানান আন্দোলনরত এই ছাত্র।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ হাসিনা হল থেকে কিছু ছাত্র হল ত্যাগ করলেও বেশিরভাগ ছাত্রী এখনো হলে অবস্থান করছেন।

উল্লেখ্য, ২৬ মার্চ থেকে টানা চারদিন ভিসি বিরোধী এই আন্দোলন চলমান রয়েছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply