ইনজুরিতে রোনালদো, হোঁচট খেলো পর্তুগাল

|

ইউরো ২০২০ বাছাইপর্বে ফ্রান্স আর ইংল্যান্ডের জয়ের রাতে আবারও হোঁচট খেয়েছে পর্তুগাল। রস বার্কলির জোড়া গোলে মন্টেনেগ্রোকে ৫-১ গোলে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ৪-০ গোলের জয় পেয়েছে ফ্রান্স। তবে, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ইনজুরির রাতে সার্বিয়ার সাথে ১-১ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে পর্তুগাল।

ইউক্রেনের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ড্র করা ছন্দহীন পর্তুগাল ঘরের মাঠেও শুরু থেকেই নিস্প্রভ। সপ্তম মিনিটেই নেমে আসে পিনপতন নিরবতা। পেনাল্টি থেকে সার্বিয়াকে এগিয়ে দেন ফরোয়ার্ড দুসান তাদিচ। মরার ওপর খাড়ার ঘা আসে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়লে।

তবে ৪২ মিনিটে হতাশা কাটে স্বাগতিকদের। দূরপাল্লার শটে লক্ষ্যভেদ করেন দানিলো পেরেইরা। দ্বিতীয়ার্ধে আন্দ্রে সিলভা-রাফায়েল গুয়েরেইরো ব্যর্থ হলে টানা ২য় ড্রয়ের হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় ইউরোর ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের।

ফ্রান্স আর আইসল্যান্ড দুই দলই জয় নিয়ে শুরু করেছিলো বাছাইপর্বের অভিযান। তবে, স্বাগতিক ফ্রান্সের সামনে শুরু থেকেই কোণঠাসা হয়ে পরে অতিথীরা। ১২ মিনিটে গোলের গেড়ো খোলেন স্যামুয়েল উমতিতি। কিলিয়ান এমবাপ্পে করেন অ্যাসিস্ট।

এরপর ৬৭ মিনিট পর্যন্ত আর আইসল্যান্ডের জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারছিলো না বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তবে, পরের মিনিটেই অলিভার জিরু নাম তোলের স্কোরশিটে। ৩৫ গোল করে ফ্রান্সের ইতিহাসের ৩য় সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন এই ফরোয়ার্ড।

বাকি সময়ে আইসলান্ডের জালে আরও ২ গোল দেন কিলিয়ান এমবাপ্পে আর অ্যান্টইন গ্রিজম্যান। গোল ব্যাবধানে এই গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে ফ্রান্স।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অঘটনের ইঙ্গিত দিয়েছিলো মন্টেনেগ্রো। ১৭ মিনিটে স্বাগতিকরা এগিয়ে যায় মার্কো ভিসোভিকের গোলে। ম্যাচের ৩০ মিনিটে ইংলিশদের গোলউৎসবের সূচনা করেন মাইকেল কিন। প্রথমার্ধে আরও একটি গোল আসে রস বার্কলির কল্যাণে।

৫৯ মিনিটে রস বার্কলি পান ২য় গোলের দেখা। গোলদাতার তালিকা নাম ওঠাতে বাদ যাননি হ্যারি কেইন আর রাহিম র্স্টালিংও। ২ ম্যাচে প্রতিপক্ষের জালে ১০ গোলে দেয়া থ্রি-লায়নরা রয়েছে গ্রুপ এর শীর্ষস্থানে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply