বগুড়ায় কালরাত্রির সন্ধ্যায় জ্বলে উঠল লাখো মোমবাতি

|

বগুড়া ব্যুরো:

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের পঁচিশে মার্চ কালরাত্রিতে প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধে পুলিশ বাহিনীর গৌরবোজ্জ্বল অবদান ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বগুড়ায় ‘লাখো শহীদ স্মরণে, লাখো প্রদীপ জ্বালো’ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। বগুড়া সদর উপজেলার ৪টি স্থানসহ জেলার বাকি ১১ উপজেলাতেও এই কর্মসূচি পালন করেন স্থানীয়রা।

শহরের আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মোখলেসুর রহমান সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে মোমবাতি জ্বালিয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এরপর পর্যায়ক্রমে জেলা জুড়ে লাখো মানুষ তাদের হাতের মোমবাতি জ্বালান।

কর্মসূচির ঘোষণা অনুযায়ী প্রত্যেকে মোমবাতি নিয়ে দশ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় প্রজেক্টরের মাধ্যমে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নৃশংসতার বর্ণনা ও ছবি প্রদর্শন করা হয়।

উদ্বোধনী আয়োজনে বক্তৃতা দেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মেদ, পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক জেলা কমান্ডার রুহুল আমি বাবলু ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না। বগুড়া জেলা পুলিশ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এবং কয়েকটি পেশাজীবী ও শ্রমজীবী সংগঠন যৌথভাবে এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

আয়োজকরা জানান, জেলার ১২ উপজেলায ১ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মোমবাতি প্রজ্বলন করে স্মরণ করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের।

যমুনা অনলাইন: আরএম/এমএস


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply