এবার গুলি ও শর্টগান নিয়ে বিমানবন্দরে!

|

আব্দুল্লাহ তুহিন, বিশেষ প্রতিনিধি:

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অস্ত্র নিয়ে মাতামাতি যেন শেষই হচ্ছে না! গত দুই সপ্তাহে বেশ কয়েকটি ঘটনার পর আজ শনিবার নতুন করে আরেক যাত্রীকে আগ্নেয়াস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে। বিনা ঘোষণায় এবার ছোটখাটো পিস্তল নয়, একেবারে শর্টগানসহ (মডেল SBBL 5208, তুরস্কের তৈরি) ব্যাগ নিয়ে বিমানবন্দরে ঢুকে পড়েন প্রবাসী পল্লী গ্রুপের চেয়ারম্যানের এক দেহরক্ষী নুরুল ইসলাম।

যদিও প্রথম স্কেনিংয়েই ধরা পড়ে অস্ত্রটি। শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় নুরুলকে আটক করে অ্যাভিয়েশন নিরাপত্তা সংস্থা এভসেক।

বেসরকারি নভোএয়ারের ফ্লাইটে যশোর যাওয়ার আগে ডোমেস্টিক টার্মিনালের প্রথম স্ক্যানারে ১০ রাউন্ড গুলি ও অস্ত্রসহ তাকে আটক করা হয়।

বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে, নিয়ম না মেনে ঘোষণা ছাড়া শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করায় নুরুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। তিনি নভোএয়ারের ভিকিউ-৯৪৫ ফ্লাইটে যশোর যাচ্ছিলেন।

এর আগে ১১ মার্চ ঘোষণা ছাড়াই অস্ত্র নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবেশের অভিযোগে যশোরের চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলসর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরীকে আটক করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রামে বিমান ছিনতাইচেষ্টার ঘটনায় প্রাপ্ত খেলনা পিস্তলের তদন্ত শেষ না হতেই গত ৫ মার্চ লাইসেন্স করা পিস্তল নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের স্ক্যানিং মেশিন পার হন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

এ নিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন যে তথ্য দেন তাকে ‘অসত্য’ বলে মন্তব্য করে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। ওই সময় বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে দেশব্যাপী সমালোচনা শুরু হয়।

সম্প্রতি খেলনা বন্দুক নিয়ে বিমানে ওঠে ছিনতাইয়ের হুমকি দেয়ার পর বিমান অবতরণ ও এক যুবক নিহত হওয়ার ঘটনার পর থেকে বিমানবন্দরে বিনা ঘোষণা যাত্রীদের অস্ত্র বহনের বিষয়টি আলোচনায় আসে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply