‘বিশ্বে শরণার্থী সংকট মোকাবেলায় জাতিসংঘ ব্যর্থ’

|

বিশ্বে শরণার্থী সংকট মোকাবেলায় জাতিসংঘ ব্যর্থ: এমন অভিযোগ জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডির। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষেদের বৈঠকে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানান তিনি। এদিকে রোহিঙ্গারা বিশ্বে রাষ্ট্রহীন গোষ্ঠীর তালিকার শীর্ষে রয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে UNHCR। সংস্থাটি বলছে, বিশ্বে এখন রাষ্ট্রহীন মানুষের সংখ্যা ৩০ লাখ।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা UNHCR বলছে, রোহিঙ্গারা বিশ্বে রাষ্ট্রহীন মানুষের তালিকার শীর্ষে। সংখ্যালঘু এসব দেশহীন মানুষের নেই কোনো স্বীকৃতি, পরিচয় এবং কর্মসংস্থান।

আন্তর্জাতিক সুরক্ষা দপ্তরের  ইউএসএইচসিআর পরিচালক ক্যারল ব্যাশেলর বলেন, বিশ্বে রাষ্ট্রহীন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ রয়েছে। কোন দেশই স্বীকৃতি দিতে চায়না এসব জনগোষ্ঠীকে। নাগরিকত্ব না থাকায় সব ধরণের সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত তারা। এসব তালিকার শীর্ষে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। মিয়ানমারে যে নাগরিকত্ব আইন রয়েছে তাতে রোহিঙ্গারা পড়ে না। কিন্তু দ্রুত সংকটের সমাধান হওয়া প্রয়োজন ।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একই আহ্বান জানান শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডি। রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার পাশাপাশি তাদের ফিরিয়ে নিতে উপযুক্ত পরিবেশ তৈরির ওপর জোর দেন গ্রান্ডি। সংকটের জন্য জাতিসংঘের ব্যর্থতাকে দায়ী করেন তিনি। তিনি বলেন, সংকট সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ব্যর্থতার কারণেই উদ্বাস্তুর সংখ্যা বাড়ছে। রাখাইনে শান্তি ও স্থিতিশীলতা আনতে আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধা বাড়াতে হবে মিয়ানমারকে। সম্মান দিতে হবে মানবাধিকারের প্রতি। এজন্য রোহিঙ্গাদের নাগরিত্বের বিষয়টির সমাধান প্রয়োজন। তাদের দেশে ফিরিয়ে নিতে উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে হবে।

এদিকে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে মিয়ানমারের ওপর চাপ বৃদ্ধি এবং সেনা কর্মকর্তাদের ওপর অবরোধ আরোপে বৃহস্পতিবার সিনেটে প্রস্তাব তোলেন সিনেটরা। সংকট নিয়ে আলোচেনায় চলতি মাসে নেইপিদো সফরের কথা রয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের।

 









Leave a reply