৭ মার্চের ভাষণকে স্বীকৃতি দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ধন্যবাদ

|

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে “মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড” হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় ইউনেস্কোর মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ এক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন, জাতির পিতার এই ভাষণই বাঙিলাকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়তে উদ্বুদ্ধ করেছিল। ৭৫ পরবর্তী সময়ে সরকারি গণমাধ্যমে নিষিদ্ধ থাকলেও, এই ভাষণ মানুষের হৃদয় থেকে মুছে যায়নি। ইউনেস্কোর এই স্বীকৃতি বাঙালি জাতি ও বাংলা ভাষার জন্য বিশাল গৌরবের ও নতুন মাইলফলক বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্যারিসে চার দিনের বৈঠক শেষে, সোমবার সংস্থাটির আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা কমিটি- IAC ঘোষণা করে ৭৮টি দলিল ও পাণ্ডুলিপির তালিকা। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ইউনেস্কো।

সংস্থাটির পরিচালক ইরিনা বোকোভা বিবৃতিতে জানান, ‘মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড’ প্রোগ্রামের আওতায় গণ্য হবে এসব দলিল। বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জ্ঞান আহরনের জন্যেই ঐতিহাসিক দলিলগুলোকে সম্মান জানানো হচ্ছে। স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও মর্যাদা বজায় রাখার জন্য একটি ভাষণ কতটা প্রভাব ফেলতেপারে- তা রয়েছে দলিলগুলোতে। এছাড়া, আর্ন্তজাতিক সহযোগিতা ও পারস্পরিক বোঝাপড়ায় যে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব- তাও রয়েছে এসব পাণ্ডুলিপিতে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ন্যাশনাল আর্কাইভের পরিচালক ড. আবদুল্লাহ আল রঈসির নেতৃত্বে ১৪ বিশেষজ্ঞের দল দু’বছরের পরীক্ষা ও মূল্যায়ন শেষে প্রকাশ করে তালিকাটি।

যমুনা অনলাইন- এফআর









Leave a reply