সংরক্ষিত বনে বোমা ফেলে ‘গাছ হত্যা’: জাতিসংঘে বিচার চাইবে পাকিস্তান

|

ভারতীয় বিমান হামলায় জঙ্গলে গাছের ক্ষতি হওয়ায় জাতিসংঘে বিচার চাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান। দেশটির একজন মন্ত্রীর বরাতে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জঙ্গলে ভারতের বোমা ফেলাকে হামলাকে ‘ইকো টেরোরিজম’ হিসেবে অভিহিত করেছে ইসলামাবাদ।

গত মঙ্গলবার ভারতীয় বিমানবাহিনী সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের বালাকোট হামলা চালায়। ভারতের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, হামলায় বালাকোটে অবস্থিত জইশ-ই মুহাম্মদের একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলায় অন্তত ৩০০ জঙ্গি নিহত হয়েছে বলেও দাবি করে দেশটি। তবে হতাহতের পক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি নয়া দিল্লী।

অন্যদিকে পাকিস্তান দাবি করেছেন, বালাকোটে হামলায় কেউ নিহত হয়নি। ওই এলাকায় কোনো জঙ্গি আস্থানাও নেই বলে জানিয়েছে তারা। আন্তর্জাতিক মিডিয়া খবরেও জানানো হয়, ওখানে একজন গ্রামবাসী আহত হওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে হামলায় বেশ কিছু পাহাড়ি গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

আজ শুক্রবার রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে- পাকিস্তানের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মালিক আমিন আসলাম জানান, ভারত সংরক্ষিত একটি বনাঞ্চলে বোমা ফেলেছে। পাকিস্তান সরকার এটিকে পরিবেশের ওপর নেতিবাচক প্রভাব হিসেবে নিচ্ছে এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন ফোরামে এর বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হবে।

‘সেখানে যা হয়েছে সেটা এনভায়রনমেন্টাল টেরোরিজম।’ রয়টার্সকে বলছিলেন আসলাম। ‘সেখানে অনেক পাইন গাছ মারা পড়েছে। এটা পরিবেশের জন্য বড় ক্ষতি’ বলেন তিনি।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply