মোদির সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলতে চান ইমরান খান!

|

পাক-ভারত যুদ্ধ নয় বরং শান্তি চায় পাকিস্তান। সীমান্ত উত্তেজনা নিয়ে মোদির সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলতে প্রস্তুত রয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ কোরেশি জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে পাক-ভারত যুদ্ধ নিয়ে ফোনে কথা বলতে প্রস্তুত রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

টেলিফোনে তিনি দু’দেশের শান্তি নিয়ে আলোচনা করতে চান। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ কোরেশি প্রশ্ন ছুড়ে বলেন, মোদি এর জন্য তৈরি? জিও নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডন এ খবর জানায়।

কোরেশি বলেন, আমরা সব কিছুর পরিণামে জন্য তৈরি। যদি শান্তির জন্য তারা অগ্রাধিকার দেয়, আমরা শান্তির জন্য প্রস্তুত। যদি তারা অগ্রাধিকারভিত্তিক আলোচনা করে তাহলে আমরা আলোচনার জন্য প্রস্তুত।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুলওয়ামার ঘটনায় ভারত যদি প্রমাণ দিতে পারে তাহলে আমরা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করব। তিনি বলেন, আমরা আলোচনার জন্য প্রস্তুত। সন্ত্রাস নিয়ে তারা আলোচনা করতে চাইলে আমরা প্রস্তুত। শান্তির জন্য আলোচনা করবে, আমি প্রস্তুত। আপনি এটি একটি সাধারণ চ্যালেঞ্জ করতে চান, আমি প্রস্তুত।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, আপনি আসলে কী চান? আপনি রাজনীতির জন্য আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা বিঘ্নিত করতে চান? সাধারণ মানুষের জীবন বিষিয়ে তুলতে চান? এটি একটি বুদ্ধিমান কৌশল নয়। এটি না জ্ঞান, না রাষ্ট্রশাসন?

প্রসঙ্গত গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় দেশটির আধাসামরিক বাহিনীর গাড়িবহরে হামলায় অন্তত ৪৪ সেনা নিহত হন। এই আত্মঘাতী হামলার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। ভারত এ হামলার পেছনে পাকিস্তানের মদদ রয়েছে বলে দাবি করে আসছে।

এই হামলার জেরে গত মঙ্গলবার কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানের বালাকোটে বিমান হামলা চালায় ভারতীয় বাহিনী। হামলায় ২০০ থেকে ৩০০ জঙ্গি নিহত হয় বলে দাবি করেছে দেশটি।

এখানেই থেমে নেই গত বুধবার পাকিস্তান সীমান্তে ভারতীয় দুই যুদ্ধবিমানকে ভূপাতিত করে পাকিস্তান সেনারা। জবাবে ভারত পাকিস্তানের দুটি যুদ্ধবিমানকে ভূপাতিত করে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply