ভিনগ্রহে প্রাণ খুঁজবে বাঙালি কন্যার সেন্সর

|

বাঙালি কন্যা মেহমুদা সুলতানার তৈরি করা সেন্সর যন্ত্রের মাধ্যমে ভিনগ্রহে প্রাণ খুঁজবে নাসা। তার তৈরি প্রযুক্তি আগামী দিনে চাঁদ ও মঙ্গলে মহাকাশচারীদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হয়ে উঠতে চলেছে।

সুলতানার উদ্ভাবিত প্রযুক্তির নাম- ‘থ্রিডি-প্রিন্টেড সেন্সর টেকনোলজি’। অত্যন্ত কম চাপ ও তাপমাত্রায় কোনো গ্যাস বা বাষ্প খুব সামান্য পরিমাণে থাকলেও, তার মধ্যে প্রাণের উপাদান লুকিয়ে আছে কিনা, আছে কিনা পানির কণা, অ্যামোনিয়া, মিথেন বা হাইড্রোজেনের অণু, সুলতানার প্রযুক্তির দৌলতে এবার তার গন্ধও পাওয়া যাবে।

আর ‘নাকে’ আসা সেই ‘গন্ধ’ সুলতানার বানানো সেন্সর বেতার (ওয়্যারলেস) অ্যান্টেনার মাধ্যমে পৃথিবী বা গ্রাউন্ড স্টেশনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলা উপগ্রহকে জানিয়ে দিতে পারবে মুহূর্তেই। যা এর আগে কখনও সম্ভব হয়নি।

আরশোলার মতো সেন্সর বানানোর প্রয়োজনটা নাসার অনেক দিনের। ভিনগ্রহে প্রাণের খোঁজে সেই হাতিয়ারটা এতদিন ছিল না নাসার হাতে। যা তুলে দিলেন সুলতানা। সেন্সরটি আকারে আমাদের হাতের সবচেয়ে ছোট আঙুলটির (কনিষ্ঠা) মতো। ৩ ইঞ্চি লম্বা, ২ ইঞ্চি চওড়া। এত ছোট সেন্সর এর আগে আর পাঠানো যায়নি মহাকাশে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply