পানছড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে জেএসএস কর্মী নিহত

|

খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়ি জেলার সীমান্তবর্তী পানছড়ি উপজেলায় রনি ত্রিপুরা নামে এক পাহাড়ি যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সন্ধ্যা ৭টার দিকে পানছড়ি বাজারের একটি আবাসিক হোটেলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রনি ত্রিপুরা পানছড়ি উপজেলার মরাটিলা এলাকার মনিন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে। এছাড়াও সে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস এম.এন লারমা গ্রুপ) এর সক্রিয় কর্মী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) দুলাল হোসেন জানান, মোটরসাইকেলে আসা অস্ত্রধারী দুই পাহাড়ি যুবক খুব কাছ থেকে তাকে লক্ষ্য করে গুলি করে দ্রুত পালিয়ে যায়। তাৎক্ষণিক স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধ রনি ত্রিপুরাকে উদ্ধার করে পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আরিফুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে আনার দশ মিনিট পর তার মৃত্যু হয়।

এদিকে হামলাকারীরা পাহাড়ি আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর কর্মী বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে এ বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি ইউপিডিএফ।

এর আগে গত ৮-ই জানুয়ারি সন্ধ্যায় পানছড়ি বাজারে সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজির মাহমুদকে প্রকাশ্যে গুলি করে পালিয়ে যায় পাহাড়ি এক যুবক। গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হলেও প্রাণে বেঁচে যান তিনি। ওই ঘটনায় পানছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমাসহ ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়।









Leave a reply