চুরির অপবাদ দিয়ে স্কুলছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা

|

মোবাইল চুরির অভিযোগে নরসিংদীর শিবপুরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়ার পর ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী আজিজা খাতুন। নিহত আজিজা শিবপুরের বাঘাবো ইউনিয়নের খৈনকুট গ্রামের সাত্তার মিয়ার মেয়ে।

সকালে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে তার মৃত্যু হয়। লাশ ঢাকা মেডিকেলের মর্গে রাখা হয়েছে।

বাবা আবদুর সাত্তার অভিযোগ করেন, শুক্রবার রাতে আজিজার ছোট চাচি বিউটির একটি মোবাইল খোয়া যায়। তিনি সন্দেহ করেন মোবাইলটি আজিজা চুরি করেছে। এরপর চাচিসহ কয়েকজন মিলে আজিজাকে মারধর করে হাত বেঁধে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়।

আব্দুস সাত্তারের দাবি, মোবাইল চুরির ঘটনাকে উপলক্ষ্য করে তার মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

ঢামেক বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগ সূত্র জানায়, আগুনে আজিজার শরীরের ৯৬ শতাংশ পুড়ে গেছে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে।

শিবপুর থানার ওসি সৈয়দ-উদ-জামান জানান, দগ্ধ কিশোরীকে রাতেই ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোর রাতে তার মৃত্যু হয়। এ বিষয়ে নিহতের পরিবার মৌখিক অভিযোগ করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন নিহতের পিতা। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

 









Leave a reply