ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় জেনেও ভর্তি, যুক্তরাষ্ট্রে ১২৯ ভারতীয় গ্রেফতার

|

জাল ভিসা ও পাসপোর্টের কারবারের সঙ্গে জড়িত ছিল একদল ভারতীয়। যুক্তরাষ্ট্রে তারা এই চক্র চালাত। ফাঁদ পেতে তাদের মধ্যে ১২৯ জনকে গ্রেফতার করল মার্কিন ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট (ICE)।

ওই তদন্তকারী সংস্থা জানিয়েছে, একদল ভারতীয় এই অবৈধ চক্র চালাত। এরা বিদেশিদের ছাত্রের পরিচিতি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে থাকতে সাহায্য করত। প্রায় ৬০০ জন ছাত্রছাত্রী এই চক্রান্তের শিকার হয়েছিল। অভিযুক্তদের ধরতেই ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় খুলেছিল হোমল্যান্ড নিরাপত্তা তদন্তকারী সংস্থা।

হোমল্যান্ড নিরাপত্তা তদন্তকারী সংস্থার অধীনস্থ ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্টের তদন্তকারীরা ১৩০ জন ছাত্রকে গ্রেফতার করেন। এদের মধ্যে ১২৯ জন ভারতীয়। এই প্রথমবার অ্যামেরিকায় এত বেশি সংখ্যক ভারতীয়কে একসঙ্গে গ্রেফতার করা হল।

হোমল্যান্ড নিরাপত্তা তদন্তকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, জাল পাসপোর্ট ও ভিসার কারবারিদের ধরতে তাদের তরফে ডেট্রয়েটে ফার্মিংটন হিলস বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হয়। সেই ফাঁদে পা দেয় অভিযুক্তরা। তারা জানত এই বিশ্ববিদ্যালয় ভুয়া। তারপরও তারা এখানে ভর্তি হয়।

ভারতীয় দূতাবাস গ্রেফতার হওয়া ছাত্রদের সাহায্যের জন্য ২৪ ঘণ্টার পরিষেবা চালু করেছে। ভারতীয় ছাত্রদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য একজন নোডাল অফিসারকে নিযুক্ত করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া ছাত্র, তাদের বন্ধু এবং পরিবারের সদস্যরা cons3.washington@mea.gov.in এই মেইল আইডিতে দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।

ICE জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গ্রেটার ডেট্রয়েটের ফার্মিংটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ১৩০ জন ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে। এর মধ্যে ১২৯ জন ভারতীয়। অবৈধ ভিসা চক্রের সঙ্গে যুক্তদের ধরতে এই ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় খুলেছিল হোমল্যান্ড নিরাপত্তা তদন্তকারী সংস্থা। এবার এটা বন্ধ করে দেওয়া হল। ছাত্রদের কড়া নিরাপত্তার ঘেরাটোপে রাখা হয়েছে।

আটকদের সঙ্গে দেখা করতে টেক্সাসের প্রাইরিল্যান্ড ডিটেনশন সেন্টারে যান ভারতীয় দূতাবাসের কনসুলার অফিসাররা। তাঁরা যাওয়ার পর বেশ কয়েকজনকে মুক্তি দেওয়া হয়।









Leave a reply