চিকিৎসক আকাশকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে ছয়জনকে আসামি করে মামলা

|

চট্টগ্রামে চিকিৎসক মুস্তফা মোরশেদ আকাশের আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে ছয়জনকে আসামি করে নগরীর চান্দগাঁও থানায় মামলা করেছে তার পরিবার। মামলায় মিতু ছাড়াও তার মা, বোন এবং তার দুই কথিত প্রেমিককে আসামি করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে নন্দনকানন এলাকায় খালাতো ভাইয়ের বাসা থেকে মিতুকে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মিতু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে বলে দাবি পুলিশের।

এদিকে আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আকাশের সাথে দাম্পত্য জীবনে মনোমালিন্য ও কলহের বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি। দিয়েছেন বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও। তবে তদন্তের স্বার্থে তা এখনই প্রকাশ করতে চায় না পুলিশ।

আটকের বিষয়ে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, মিতুর তথ্যমতে তার মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও আকাশের পরিবারের দেওয়া তথ্যসহ অন্যান্য সব তথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ ঘটনায় মিতুর সাথে যাদের অনৈতিক সম্পর্ক ছিল তাদের কোনো ইন্ধন আছে কি না তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধেও নেয়া হবে আইনি ব্যবস্থা।

বৃহস্পতিবার ভোরে চাঁন্দগাঁ এলাকায় নিজ বাসায় শরীরে শিড়ায় বিষ প্রয়োগ করে আত্মহত্যা করেন তরুন চিকিৎসক মুস্তফা মোরশেদ আকাশ। এজন্য তিনি স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরী মিতুর পরকীয়াকে দায়ী করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। প্রমাণ স্বরুপ জুড়ে দেন বেশকিছু ছবি, ভিডিও এবং ম্যাসেজের স্ক্রিনশট। যদিও শুক্রবার ভোর থেকে আকাশের ফেইসবুক ওয়ালে স্ট্যাটাসটি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।









Leave a reply