অসুস্থ হয়ে পড়ছে কসবা সীমান্তে অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গা শিশুরা

|

খোলা আকাশের নিচে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার গোপীনাথ ইউনিয়নের কাজিয়াতলি সীমান্তে শূন্য রেখায় ৩১ জন রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু কোন দেশের শরণার্থী তা নিয়ে আবার জটিলতা শুরু হয়েছে। ফলে প্রচন্ড শীতে সীমান্ত রেখা বরারবর খোলা আকাশের নিচে থাকা রোহিঙ্গা শিশুরা শীতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

স্থানীয় গোপীনাথপুর ইউপি চেয়ারম্যান এসএম মান্নান বলেন, বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১৭ জন শিশু রয়েছে। বাকি ছয়জন নারী ও আটজন পুরুষ। তীব্র শীতে খোলা আকাশের নিচে থাকায় শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। সকালে ভারতীয় সীমান্তরক্ষীরা তাদের খাবার সরবরাহ করেছেন বলেও জানান এই ইউপি চেয়ারম্যান।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের ২০২৯ পিলারের কাছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কাজিয়াতলী সীমান্ত দিয়ে ৩১ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশুকে বাংলাদেশে প্রবেশ করানোর চেষ্টা করছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ ফলে তারা সীমান্ত রেখায় অবস্থান করছে বলে বিজিবি জানিয়েছে।

২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল গোলাম কবীর সাংবাদিকদের বলেন, সীমান্তের শূন্য রেখায় অবস্থানকরীরা বাংলাদেশের নাগরিক নয়। ফলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

আটকে পড়া এসব রোহিঙ্গাদের নিয়ে রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভারতীয় সীমারক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) মধ্যে একাধিকবার পতাকা বৈঠক হলেও তাদের নিয়ে কোনো সমাধান হচ্ছে না।

গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম মান্নান বলেন, গত দু’দিন ধরে বিএফএস’র সঙ্গে একাধিক পতাকা বৈঠক হলেও রোহিঙ্গা বিষয়ে কোনো সমাধান হচ্ছে না।









Leave a reply